Sikh Youth Killed In Peshawar: পাকিস্তানের পেশোয়ারে প্রকাশ্যে খুন শিখ যুবক, সংখ্যালঘু নিরাপত্তায় ফের কাঠগড়ায় ইমরান খান
রবীন্দর সিং (Photo Credits: ANI)

পেশোয়ার, ৫ জানুয়ারি: নানকানা সাহিব গুরুদ্বারে (Nankana Sahib Gurdwara) হামলার দু’দিন পরেই পাকিস্তানের পেশোয়ারে (Peshawar) শিখ (Sikh) যুবককে খুন করল দুষ্কৃতীরা। রবীন্দর সিং (Rowinder Singh) নামে ওই যুবকের দেহ উদ্ধার হয় চমকানি থানা এলাকায়। রবীন্দ্রর ভাই হরমিত সিং পাকিস্তানের একটি টিভি চ্যানেলের সাংবাদিক। খবর পেয়ে স্থানীয় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে স্থানান্তরিত করে।

খবরে দাবি করা হয়েছে যে রবীন্দর আদতে খাইবার পাখতুনওয়া প্রদেশের বাসিন্দা। পেশোয়ারে এসেছিলেন বিয়ের শপিং করতে। এ ঘটনায় পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়ে ফের প্রশ্নের মুখে। খুনি রবীন্দরকে খুন করে তাঁর বাড়ির লোকজনকে জানায় বলে জানা যাচ্ছে। পুলিশের অনুমান, ব্যক্তিগত শত্রুতা হত্যার পিছনে উদ্দেশ্য হতে পারে। পুলিশ মামলার তদন্ত শুরু করেছে। আরও পড়ুন: Nankana Sahib: পাকিস্তানে নানকানা সাহিবের গুরুদ্বারে পড়ছে পাথর, শিখ ধর্মাবলম্বীদের উৎখাত করতে পথে বিক্ষুব্ধ জনতা(দেখুন ভিডিও)

ইমরান সরকারকে একহাত নিয়ে পঞ্জাবে অকালি দলের নেতা মনজিন্দর সিরসা টুইট করেছেন। তিনি লিখেছেন, নির্দিষ্ট সম্প্রদায়কে লক্ষ্য করেই খুন করা হয়েছে। কারণ, শিখ এবং অন্যান্য সংখ্যালঘুর উপর উদাসীন ইমরান খান। এরপরই সিএএ সমর্থন জাহির করে ‘উই সাপোর্ট সিএএ’ হ্যাসট্যাগ জুড়ে দেন। উল্লেখ্য, পঞ্জাব প্রদেশে গুরুনানকের জন্মস্থান নানকানা সাহিবের গুরুদ্বারে তুমুল বিক্ষোভ প্রদর্শন করে কিছু মানুষ। ভিন ধর্মে বিয়ে হচ্ছে অভিযোগ করে ঘিরে ফেলা হয় গুরুদ্বারটি। পাথর ছোড়া হয় পুণ্যার্থীদের লক্ষ্য করে। সেই ভিডিয়ো ছড়িয়ে পড়তে নড়েচড়ে বসে ইমরানের প্রশাসন।