Curd vs Yogurt for health: দই এবং গ্রীক দই, জেনে নিন কোনটি স্বাস্থ্যের জন্য বেশি উপকারী

দই এবং গ্রীক দই দেখতে একই রকম, যার কারণে সাধারণ মানুষ তাদের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারেন না। যদিও দেখতে একই রকম হলেও উভয় দই খাওয়ার ফলে স্বাস্থ্যের উপর ভিন্ন ভিন্ন প্রভাব পড়ে। চলুন জেনে নেওয়া যাক দই এবং গ্রীক দইয়ের (Curd vs Yogurt) মধ্যে কী কী পার্থক্য রয়েছে এবং কোনটি স্বাস্থ্যের জন্য বেশি উপকারী।

দই একটি দুগ্ধজাত পণ্য যা দুধে অ্যাসিডিক পদার্থ যোগ করে তৈরি করা হয়। দই তৈরি করতে দুধে একটু পুরোনো দই মিশিয়ে নিতে হয়। যেখানে গ্রীক দই দুধের ব্যাকটেরিয়া ফার্মেনটেশনের মাধ্যমে তৈরি হয়। এই কারণেই দই এবং গ্রীক দইয়ের স্বাদে পার্থক্য ও উভয়ের মধ্যে ভিন্ন ভিন্ন পুষ্টি উপাদান পাওয়া যায়।

  • দই এবং গ্রীক দই উভয়ই প্রোবায়োটিক (Probiotic) সমৃদ্ধ। এই কারণেই উভয়ই হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করার জন্য ভালো হয়। দই এবং গ্রীক দই উভয়ই খেলে পরিপাকতন্ত্র সুস্থ থাকে এবং অনেক ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
  •  দই এবং গ্রীক দই উভয়েই প্রচুর ক্যালসিয়াম (calcium) পাওয়া যায়। তাই যেকোনও দই হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী বলে মনে করা হয়। তবে গ্রীক দইয়ের তুলনায় এমনি দইয়ে খানিকটা বেশি ক্যালসিয়াম থাকে। যার কারণে দই খাওয়া একটু বেশিই উপকারী হতে পারে।
  • দই-এর থেকে গ্রীক দইকে ওজন কমাতে বেশি উপকারী বলে মনে করা হয়, কারণ গ্রীক দই-এ বেশি প্রোটিন (protein) থাকে, যা ওজন কমাতে সাহায্য করে। ওজন কমানোর চেষ্টা করলে গ্রীক দইকে নিজের খাদ্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা উচিত। খুব তাড়াতাড়ি এর সুফল দেখতে পাওয়া যাবে।