Larry Tesler Passes Away: প্রয়াত কাট, কপি-পেস্টের উদ্ভাবক লরি টেসলার
লরি টেসলার (Photo Credits: Twitter)

সান ফ্রান্সিস্কা, ২০ ফেব্রুয়ারি: প্রয়াত হলেন কাট (Cut), কপি-পেস্টের (Copy and Paste) উদ্ভাবক কম্পিউটার বিঞ্জানী লরি টেসলার (Larry Tesler)। বিখ্যাত কম্পিউটার বিজ্ঞানীর প্রয়াণে শোকস্তব্ধ বিজ্ঞানীমহল। প্রযুক্তি ও মেধার এক আশ্চর্য মিশেল ছিলেন লরি টেসলার। সোমবার মৃত্যু হয় তাঁর। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। লরি টেসলারের জন্ম নিউইয়র্কে। ১৯৬০ সালে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে তিনি স্নাতক হন। পেশার দিকে প্রথমে ছিলেন প্রোগ্রামার। পরে হয়ে ওঠেন ইনভেন্টর। মিডপেনিনসুলা ইউনিভার্সিটিতে একসময় কম্পিউটার সায়েন্সে অধ্যাপনাও করেছেন লরি। কম্পিউটারের গতানুগতিক প্রযুক্তিতে নতুনত্ব আনাই ছিল তাঁর লক্ষ্য।

স্ট্যানফোর্ড আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স ল্যাবোরেটরিতে গবেষণার সময়েই কমপেল নামে সিঙ্গল অ্যাসাইনমেন্ট ল্যাঙ্গুয়েজ উদ্ভাবন করেন লরি। পরে জেরক্স পালো অল্টো রিসার্চ সেন্টারের সদস্য হয়েছিলেন লরি। সেখানে কাজ করার সময়েই ১৯৭০ সালে তিনি আবিষ্কার করেন কম্পিউটারের কাট-কপি-পেস্ট কম্যান্ড। তাঁর হাত ধরে নতুন দিক খুলে যায় কম্পিউটার বিজ্ঞানে। ‘ব্রাউজার’ কথার জনকও তিনি। ১৯৭৬ সালে তিনি ওয়েব ব্রাউজার শব্দটির প্রচলন করেন। আরও পড়ুন: Apple Watch Saves A Life Of Teen Athlete: কিশোরের প্রাণ বাঁচাল অ্যাপল ঘড়ি, কেন জানেন?

লিজা, ম্যাসিনতোশ ও নিউটাউন, এই তিনটি ইউজার ইন্টারফেজ ডিজাইন লরি টেসলারের হাত ধরেই হয়েছিল। ১৯৮০ সালে জেরক্স পার্ক ছেড়ে অ্যাপলে যোগ দেন ল্যারি টেসলার। সিটভ জোবস তাঁকে নিয়ে আসেন তাঁর সংস্থায়। অ্যাপল নেটের ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন একসময়। ১৭ বছর তিনি অ্যাপলে কাজ করেন। পরে অ্যাডভান্সড টেকনোলজি গ্রুপের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও চিফ সায়েন্টিস্ট হন। ২০০৫ সালে অ্যাপল ছেড়ে ইয়াহুতে যোগ দেন। ২০০৮ সালে ২৩ অ্যান্ডমি-র সদস্য হন। ২০১১ সালে যোগ দেন আমাজনে।