Ayodhya Mosque Controversy: এবার অযোধ্যার মসজিদ নির্মাণের ৫ একর জমির মালিকানা দাবি করলেন দিল্লির ২ বোন, মামলা কাঠগড়ায়
অযোধ্যার মসজিদের মডেল(Photo CRedits: IANS)

লখনউ, ৪ ফেব্রুয়ারি: সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশিকা মাফিক মসজিদ নির্মাণে (Ayodhya Mosque) অযোধ্যার ধান্নিপুর গ্রামের যে ৫ একর জমি উত্তরপ্রদেশে সুন্নি সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ডকে দেওয়া হয়েছে তার মালিকানা দাবি করল দিল্লির দুই বোন। এবং নিজেদের জমি ফিরে পেতে ইতিমধ্যেই তাঁরা এলাহাবাদ হাইকোর্টের লখনউ বেঞ্চের দ্বারস্থ হয়েছেন। বুধবার এনিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টের লখনউ বেঞ্চে আবেদন করেছেন দুই বোন। আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি সেই আবেদনের শুনানির দিন ধার্য হয়েছে। এই দুই বোন হলেন যথাক্রমে রানি কাপুর ওরফে রানি বালুজা। দ্বিতীয় বোন রমারানি পাঞ্জাবি। তাঁরা জানান যে, তাঁদের বাবা জ্ঞানচন্দ্র পাঞ্জাবী ১৯৪৭ সালে দেশভাগের সময় পাঞ্জাব থেকে ফৈজাবাদে (বর্তমান অযোধ্যা) চলে আসেন। আরও পড়ুন-রোহিত শর্মার টুইটের জবাবে কৃষকদের ‘জঙ্গি’ আখ্যা কঙ্গনার, অভিনেত্রীর পোস্ট ডিলিট করল টুইটার

তাঁদের দাবি, সেই সময় ধান্নিপুর গ্রামের ২৮ একর জমি ৫ বছরের জন্য বাবা জ্ঞানচন্দ্র পাঞ্জাবিকে তদারকির দায়িত্ব দিয়েছিল তৎকালীন নাজুল বিভাগ। সেই সময়সীমার পরেও জমিগুলির দায়িত্ব জ্ঞানচন্দ্র পাঞ্জাবির তদারকিতেও ছিল। পরবর্তিতে তাঁদের বাবার নাম রাজস্ব রেকর্ডে চলে আসে। এরপর আচমকাই ভূমি রাজস্ব রেকর্ড থেকে জ্ঞানচন্দ্র পাঞ্জাবির নাম সরিয়ে দেওয়া হলে তিনি অতিরিক্ত কমিশনারের কাছে আবেদন জানান। পরে ফের নাম জুড়ে যায়। এদিকে এবার একীকরণ অফিসার একীকরণ চলার সময় ওই জমির রেকর্ড থেকে ফের তাঁদের বাবার নাম সরিয়ে দেন। এরপর তাঁদের কিছু না জানিয়েই প্রশাসনের তরফে সেই ২৮ একর জমির মধ্যে ৫ একর জমি সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে মসজিদ তৈরির জন্য দেওয়া হয়েছে। দুই বোনের দাবি যতক্ষণ না জমির মালিকানা সংক্রান্ত সমস্যা মিটছে ততক্ষণ সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে সেখানে মসজিদ তৈরির ছাড়পত্র যেন দেওয়া না হয়।