Chandrayaan 3: চাঁদ ছোঁয়ার চেষ্টা, আগামী বছরেই রওনা দেবে চন্দ্রযান ৩, জানাল ইসরো
ইসরো। (Photo Credits: PTI)

নতুন দিল্লি, ১৪ নভেম্বর: ফের চাঁদে নামার কাজ শুরু করে দিয়েছে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন (Indian Space Research Organisation)। চাঁদে সফ্ট ল্যান্ডিংয়ের (Soft Landing) চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর আগামী বছর ফের অভিযান হবে বলে জানিয়েছে ইসরো (Isro)। ইসরোর তরফে বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছে আগামী নভেম্বরেই চন্দ্রযান-৩ (Chandrayaan-3)এর পরিকল্পনা করা হচ্ছে। জানানো হয়েছে, একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি তৈরি করা হয়েছে। যে কমিটির প্রধান করা হয়েছে, তিরুবনন্তপুরমের বিক্রম সারাভাই স্পেস সেন্টারের ডিরেক্টর এস সোমনাথকে। তাঁর নেতৃত্বে একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি ‘চন্দ্রাযান-৩’ নিয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট তৈরি করছে।

ইসরোর মুখপাত্র বিবেক সিং (Vivek Singh) বলেছেন, একটি কমিটি চন্দ্রযান -২(Chandrayaan-2) এর সমস্যাগুলি এবং এর হার্ড ল্যান্ডিংয়ের পেছনে কারণগুলি নিয়ে গবেষণা করার জন্য কাজ করছে। অনেক প্রতিষ্ঠান, সংস্থা এবং প্রবীণ বিজ্ঞানীরা এই দলে রয়েছে। তিনি বলেন, "একটি কমিটি ইতিমধ্যেই চন্দ্রযান-২ সম্পর্কিত সমস্যাগুলি এবং এর হার্ড ল্যান্ডিংয়ের পেছনের কারণ নিয়ে গবেষণা করার জন্য কাজ করছে। কয়েকটি সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান চন্দ্রযান -২ এর ব্যর্থতা সম্পর্কে জানার কাজ চালাচ্ছে।" তিনি আরও যোগ করেন, "আমি চন্দ্রযান-৩ মিশনের বিষয়ে জানাচ্ছি। ২০২০ সালে এই মিশনের পরিকল্পনা করা হয়েছে।" আরও পড়ুন: Facebook Shuts Fake Accounts: বিশ্বজুড়ে ৫৪০ কোটি ভুয়ো অ্যাকাউন্ট বন্ধ করল ফেসবুক

বুধবার চন্দ্রযান-২-এর (Chandrayaan-2) তোলা চন্দ্রপৃষ্ঠের ত্রিমাত্রিক ছবি প্রকাশ করল ইসরো (ISRO)। ছবিতে দেখা যাচ্ছে চাঁদের মাটিতে (Moon's Surface) এক গহ্বর বা ক্রেটারকে। চন্দ্রযান-২-এর টেরাইন ম্যাপিং ক্যামেরা-২ এই ছবিটি তুলেছে। বুধবার ইসরো তাদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডল থেকে এই ছবি শেয়ার করেছে। ছবির ক্যাপশনে জানানো হয়েছে, চন্দ্রযান-২-এর টেরাইন ম্যাপিং ক্যামেরা-২-র তোলা গহ্বরের ত্রিমাত্রিক ছবিটি তুলেছে। ওই ত্রিমাত্রিক ছবি, যেটি টেরাইন ম্যাপিং ক্যামেরা-২ তুলেছে সেটিকে ডিজিটাল এলিভেশন মডেলে প্রসেস করা হয়েছে। সম্পূর্ণ চন্দ্রপৃষ্ঠের ডিজিটাল এলিভেশন মডেল তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে।

চলতি বছরের ৭ সেপ্টেম্বর চাঁদের দক্ষিণ দিকে নামার চেষ্টা করে চন্দ্রযান-২-এর ল্যান্ডার বিক্রম (Lander Vikram)। কিন্তু পরিকল্পনা মতো সফ্ট ল্যান্ডিংয় হয়নি। কী কারণে সফ্ট ল্যান্ডিং সফল হয়নি তা নিয়েও একটি রিপোর্ট তৈরি করেছে ইসরো। সেখানে খুঁজে বের করা হয়েছে কোথায় সমস্যা দেখা দিয়েছিল।