Goa: গোয়ায় তৃণমূলের সঙ্গে জোটের সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দিল আম আদমি পার্টি
Mamata Banerjee with Arvind Kejriwal. (File Photo/Twitter)

নতুন দিল্লি, ১২ ডিসেম্বর: গোয়ায় বিজেপি-কংগ্রেসের বিকল্প হিসেবে হাজির তৃতীয় শক্তি। আগামী বছর গোয়া বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্য রাজনীতিতে ঝড় তুলে পা রেখেছে তৃণমূল কংগ্রেস ও আম আদমি পার্টি। পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিকে পরাস্ত করে গোয়ায় বিজেপি সরকারকে সরাতে মরিয়া তৃণমূল। আর দিল্লিতে বিজেপিকে খড়কুটোর মত উড়িয়ে দিয়ে এবার গোয়ায় সরকার গড়তে মরিয়া অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি। গোয়ায় তৃণমূল ও আপ-দুটো দলই বেশ শক্তি বাড়িয়ে নিয়েছে। মমতা ব্যানার্জি, অরবিন্দ কেজরিওয়াল-দুজনেই গোয়ায় গিয়ে দলের জয়ের কথা বলেছেন।

কেজরিওয়ালের সঙ্গে মমতার বন্ধুত্বের কথা সবার জানা। যে কোনও ইস্যুতেই দুজনে দুজনের দিকে সমর্থনের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাই অনেকে ভেবেছিলেন, আগামী বছর বিধানসভা নির্বাচনে গোয়ায় জোট করে লড়তে পারে তৃণমূল ও আপ। পশ্চিম গোয়ায় বেশ শক্তি বাড়িয়েছে আপ। আবার রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সহ রাজ্য রাজনীতির একঝাঁক বড় মুখকে দলে টেনে গোয়ায় তৃণমূলও নির্ধারক শক্তি হওয়ার মত জায়গায় যাচ্ছে। আরও পড়ুন: গোয়ায় জিতলে 'গৃহলক্ষ্মী' প্রকল্পে মহিলাদের মাসে ৫ হাজার টাকা ভাতার প্রতিশ্রুতি তৃণমূলের

দেখুন টুইট

তবে গোয়ায় তৃণমূলের সঙ্গে জোট করার কথা উড়িয়ে দিলেন আম আদমি পার্টি-র শীর্ষ নেত্রী আতিশি। দিল্লির আপ বিধায়ক আতিশি সাফ জানিয়ে দিলেন, "আমি পুরোপুরি দায়িত্ব নিয়ে বলছি তৃণমূলের সঙ্গে কোনওরকম জোট করছি না আমরা। সুতরাং ওদের সঙ্গে কথা বলার প্রশ্নই আসছে না। আমরা গোয়ায় একেবারে নতুন বিকল্প, দুর্নীতিহীন সরকার সঙ্কল্পবদ্ধ।"

দেখুন টুইটার

ক দিন আগেই গোয়ায় এসে রাজ্যের প্রতিটি মহিলাকে এক হাজার টাকা করে ভাতা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন আপ প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল। গোয়ায় সরকার গড়তে পারলে রাজ্যের মহিলাদের এই টাকা দেওয়া হবে বলে কেজরি জানিয়েছিলেন। এরপর গতকাল, শনিবার গোয়া তৃণমূলের পক্ষে থেকে ঘোষণা করা হয়, বাংলার 'লক্ষ্মীর ভাণ্ডার'-এর আদলে গোয়ায় ক্ষমতায় এলে গৃহলক্ষ্মী প্রকল্পের আওতায় রাজ্যের প্রত্যেক গৃহকর্ত্রীকে মাসে পাঁচ হাজার টাকা দেওয়া হবে। বাংলায় লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে দেওয়া হয় ৫০০ টাকা করে। আগামী বছরের গোড়ায় গোয়ায় বিধানসভা নির্বাচনের আগে জমজমাট রাজ্য রাজনীতি।