পৌরণিক সর্প! সাত মাথা বিশিষ্ট সাপের খোলস দেখে বেঙ্গালুরুতে হইচই (দেখুন ভিডিও)
সাত মাথা বিশিষ্ট সাপের খোলস(Photo Credit: Twitter)

বেঙ্গালুরু, ১০ অক্টোবর: সাত মাথা বিশিষ সাপের খোলস উদ্ধারকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়াল কর্ণাটকের মার গোডওয়ানা ডোড্ডি এলাকায়। বুধবার স্থানীয় একটি মন্দির লাগোয়া খেতে প্রথম খোলসটিকে দেখতে পাওয়া যায়। এদিকে সাত মাথা বিশিষ্ট সাপের খোলস (seven-headed snake) উদ্ধারের খবর রাষ্ট্র হতে সময় নেয়নি। এহেন সাপের খোলস দেখতে পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলি থেকে প্রায় ১০০-র মতো বাসিন্দা ঘটনাস্থলে ভিড় করে। এই পৌরাণিক সর্প দেখতে ভিড় করা স্থানীয় বাসিন্দা প্রশান্ত এমএন বলেন, মাস ছয়েক আগেই হবহু এমনিই সাপের খোলস উদ্ধার হয়েছিল এখানে। গ্রামের বাসিন্দারা সেই খোলসটিকে নষ্ট না করে সংরক্ষণের ব্যবস্থা করেন। একটি মন্দির গড়ে তুলে সাপের খোলসকে সংরক্ষিত করা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, আগে উদ্ধার হওয়া খোলসটিকে ওই মন্দিরেই রাখা হয়েছে। খোলস যেখান থেকে উদ্ধার হয়েছে সেই জায়গাটির ঐশ্বরিক ক্ষমতা আছে। এমনটাই বিশ্বাস করেন স্থানীয়রা। ইতিমধ্যেই সাত মাথা বিশিষ্ট সাপের খোলসটিকে ওই মন্দিরে সংরক্ষণের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বুধবার সকালে মন্দিরের একজন কর্মী যখন প্রাঙ্গন পরিষ্কার করছেন তখনই কাছের এক মাঠে ওই খোলসটি উদ্ধার হয়। গ্রামের বাসিন্দা বালাপ্পা নিজে প্রথম মাঠের মধ্যে সাত মাথার খোলসটি দেখতে পান। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি মন্দিরে এসে খবরটা দেন। আরও পড়ুন-Maharashtra Assembly Election 2019: বিজেপিকে বড় জায়গা দিতে জনপ্রিয় নেতার আসন ছেড়েছে দল, রেগেমেগে গণ পদত্যাগ করল শিবসেনার কর্মীরা

যদিও সাত মাথা বিশিষ্ট সাপের অস্তিত্ব উড়িয়েছেন সর্প বিশেষজ্ঞরা। এই প্রসঙ্গেসর্প বিশেষজ্ঞ রামু পি-এর দাবি, এমনটা হতে পারে না। সাত মাথা বিশিষ্ট সাপের অস্তিত্বই নেই। দুই মাথা বিশিষ্ট সাপ রয়েছে। তবে তা-ও বেশ বিরল। আর মনুস্য সন্তান যেমন যমজ হয় তেমন সাপেরও দুটি মাথা কখনও সখনও দেখা যায়।