N-95 Mask Warning: ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে N-95 মাস্ক, ব্যবহার না করার নির্দেশ দিল কেন্দ্র
N-95 মাস্ক (Photo Credits: Amazon)

নতুন দিল্লি, ২১ জুলাই: করোনা অতিমারীর শুরুর পর্যায় থেকেই N-95 মাস্কের চাহিদা ছিল প্রবল। ঘরে ঘরে N-95 মাস্ক কেনার হিড়িক পড়ে যায়। কিন্তু, কেন্দ্রীয় সরকার N-95 মাস্ক-এ চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস না করারই বার্তা দিয়েছে। বিশেষত, ভালভড রেসপিরেটর্স থাকা N-95 মাস্ক ব্যবহার করতে বারণ করে কেন্দ্র।

সোমবার এক নোটিশে N-95 মাস্কের ব্যবহারের বিরুদ্ধে কেন্দ্রের আপত্তির কথা প্রতিটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে পরিষ্কার ভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্র বিশেষজ্ঞদের দিয়ে সমীক্ষা চালিয়ে দেখেছে, N-95 মাস্কে উপকারের থেকে 'ক্ষতিকারক' দিকই বেশি। কেন্দ্রের বক্তব্য, যে কারণে মাস্ক পরা, সেই কোভিড সংক্রমণই ঠেকাতে পারে না N-95 মাস্ক। সংক্রমণের বিস্তার রোধে কেন্দ্র যে সমস্ত পদক্ষেপ করেছে, N-95 মাস্ক তার জন্য ক্ষতিকারক। সেই পরিপ্রেক্ষিতে, সকলকে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে, ফেস কভার ব্যবহার করতে এবং একইসঙ্গে মাস্কের ভুল ব্যবহার রুখতে। আরও পড়ুন, শচিন পাইলট শিবিরের ভাগ্য নির্ধারণ শুক্রবার, জানিয়ে দিল রাজস্থান হাইকোর্ট

এর আগে মাস্ক ব্যবহারের নির্দেশিকার উল্লেখ করেন ডিজিএইচএস, তারা জানায়-মাস্ক পরার আগে, সকলকে ন্যূনতম ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। অ্যালকোহল-জাত স্যানিটাইজার ব্যবহার করা যেতে পারে। ফেস কভার এমন হতে হবে যাতে একজনের মুখ, নাক ও থুতনি পুরোটাই ঢাকা পড়ে। প্রতি ৮ ঘণ্টা অন্তর মাস্ক পরিবর্তন করতে হবে। ভিজে মাস্ক পরা অনুচিত। মাস্ক ব্যবহারের পর, তাকে খোলা জায়গায় ফেলা যাবে না। কোনও ঢাকনা-যুক্ত জঞ্জালপাত্রে ফেলতে হবে। মাস্ক ফেলার অবশ্যই হাত ধুতে হবে। ফেস মাস্ক অন্য কারও সঙ্গে ভাগ করা যাবে না।