দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে এবার কর্পোরেট কর হ্রাসের সিদ্ধান্ত নির্মলা সীতারমণের
নির্মলা সীতারমণ(Photo Credit: ANI)

দিল্লি, ২০ সেপ্টেম্বর: আর্থিক মন্দায় জেরবার গোটা দেশ। গাড়ি শিল্পের ব্যবসা পড়ে যাওয়ায় সেই পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। এমতাবস্থায় দেশীয় সংস্থার ঘাড় থেকে কর্পোরেট করের হার কমিয়ে কিছুটা স্বস্তি দিতে চাইলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। তবে নতুন দেশীয় সংস্থাকেও পাহাড় পরিমাণ কর্পোরেট কর থেকে রেহাই দেওয়া হয়েছে। এক বিবৃতিতে এদিন সীতারমণ জানান, এই কর্পোরেট করের হার কমিয়ে দেওয়ার বিষয়টি আয়কর আইনে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। পাশাপাশি দেশীয় সংস্থার উপর থেকে ন্যূনতম বিকল্প করের হারও কমিয়ে দেবে সরকার। এবার উৎসবের মরশুমে সাধারণ মানুষের কাছে ঋণ পৌঁছে দিতে ব্যাংকগুলিকে অভিনব জনসংযোগের উদ্যোগ নিতে বলা হয়েছে৷

জানা গিয়েছে, ব্যাংকগুলি যাতে সাধারণ গ্রাহককে বেশি করে ঋণ দেয় তা অর্থমন্ত্রকের তরফ থেকে বলা হয়েছে। এরই পাশাপাশি অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি সংস্থাগুলিকেও (এমএসএমই) যাতে বেশি করে ঋণ দিতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি ব্যাংকগুলিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যাতে কোনও এমএসএমই ঋণ যদি সাময়িকভাবে অনাদায়ী হয়ে যায় তাহলেও সেই অ্যাকাউন্ট যেন পরের বছর মার্চ মাস অবধি অনাদায়ী বলে ঘোষণা না করা হয়। বরং সেই অনাদায়ী ঋণগুলিকে পুনর্গঠন করার চেষ্টা করতে হবে। আরও পড়ুন-ই-সিগারেটে নিষেধাজ্ঞা জারি কেন্দ্রের, নিয়ম ভাঙলে কড়া শাস্তির দাওয়াই: নির্মলা সীতারমণ

অর্থমন্ত্রীর মতে, অনেকটা লোন মেলার মতো উদ্যোগ নিতে হবে যাতে সাধারণ মানুষ এসে কোনও ব্যাংক বা এনবিএফসি থেকে সহজে ঋণ পায়৷ এজন্য আগামী ১৫ অক্টোবরের মধ্যে, দুটি ধাপে ২০০টি করে জেলায় অর্থাৎ মোট ৪০০ জেলায় এই লোন মেলার আয়োজন করবে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংক এবং এনবিএফসি সংস্থাগুলি৷ এই ঘোষণার আগে অর্থমন্ত্রী রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলির শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। এরপর সাংবাদিক সম্মেলনে দেশের পতনোন্মুখ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে একের পর এক দাওয়াই দিতে থাকেন নির্মলা সীতারমণ।  শুক্রবার জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক রয়েছে তার আগে ব্যাংক কর্তাদের সঙ্গে তাঁর এই আলোচনার বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।