Afghanistan Crisis: তালিবানের নজরে ইমেল, আফগান সরকারের বহু অ্যাকাউন্ট বন্ধ করল গুগল
Google (Photo Credits: IANS)

ওয়াশিংটন, ৪ সেপ্টেম্বর: পরিস্থিতি বিবেচনা করে আফগান সরকারের বহু ইমেল অ্যাকাউন্ট (Email Accounts) সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দিল গুগল (Google)। আফগানিস্তানের (Afghanistan) দখল নেওয়ার পর তালিবানরা (Taliban) আশরফ ঘানি সরকারের আধিকারিক ও কর্মীদের খোঁজার জন্য বায়োমেট্রিক ও ডেটাবেস ব্যবহার করতে পারে, এই আশঙ্কা থেকেই গুগল বহু ইমেল অ্যাকাউন্ট সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দিয়েছে বলে খবর। শুক্রবার এক বিবৃতিতে গুগল জানিয়েছে যে তারা আফগানিস্তানের পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে। যদিও ঘানি সরকারের আমলের ইমেল অ্যাকাউন্ট লক করার বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু বলেনি সংস্থাটি।

ঘানি সরকারের আমলের এক কর্মী সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, তালিবানরা ঘানি সরকারের আমলের কর্মী ও আধিকারিদের ইমেল সংক্রান্ত তথ্য হাতে পেতে চাইছে। ওই কর্মী আরও জানিয়েছেন যে অগাস্টের শেষের দিকে তালিবানরা তাঁকে একটি মন্ত্রকের সার্ভারে থাকা ডেটা সংরক্ষণ করতে বলেছিল। ওই মন্ত্রকেরই কাজ করতেন তিনি। যদিও ওই কর্মচারী দাবি করেছেন যে তালিবানের কথা মতো তিনি সার্ভার সংরক্ষণ করেননি। বর্তমানে তিনি লুকিয়ে আছেন। তবে তিনি যদি ডেটা সংরক্ষণ করতেন তবে তালিবানরা নানা তথ্য এবং অফিসিয়াল যোগাযোগের অ্যাক্সেস পেয়ে যেত। সুরক্ষার কারণেই ওই আধিকারিকের নাম এবং আফগানিস্তান সরকারের কোন মন্ত্রকে তিনি কাজ করতেন তা গোপন রেখেছে রয়টার্স। আরও পড়ুন: Taliban: 'চিন আমাদের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য সঙ্গী', আফগানিস্তানে সরকার গঠনের আগে মন্তব্য তালিবানের

জানা যাচ্ছে, অর্থ, শিল্প, উচ্চশিক্ষা এবং খনি মন্ত্রক-সহ প্রায় ২৪টি সরকারি সংস্থা গুগলের সার্ভার ব্যবহার করত। আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্সিয়াল প্রোটোকল অফিসও গুগলের সার্ভার ব্যবহার করেছে। সরকারি ডেটাবেস এবং ইমেল হাতে আসলেই তালিবানরা জানতে পারবে গত সরকারের কর্মচারী, প্রাক্তন মন্ত্রী, সরকারি ঠিকাদার এবং বিদেশি অংশীদারদের সম্পর্কে নানা তথ্য।

মেইল এক্সচেঞ্জারের রেকর্ড বলছে গুগল ছাড়াও গত আফগান সরকারের কাজকর্মে মাইক্রোসফট কর্পের ইমেল পরিষেবা ব্যবহার করা হত। বিদেশ মন্ত্রক এবং রাষ্ট্রপতি কার্যালয় এই পরিষেবা ব্যাবহার করত। কিন্তু, এটা পরিষ্কার নয় যে তালিবানদের হাতে ডেটা যাওয়া ঠেকাতে সফটওয়্যার সংস্থাটি ঠিক কী পদক্ষেপ নিচ্ছে বা নেওয়ার কথা ভাবছে। কারণ, মাইক্রোসফট এখনও এই বিষয়ে কোনও কিছুই জানায়নি।