Sushmita Dev: কংগ্রেস থেকে আসা শিলচরের সুস্মিতা দেবকে রাজ্যসভায় পাঠাচ্ছেন মমতা, নির্বাচন ৪ অক্টোবর
Sushmita Dev with Abhishek Banerjee. (Photo Credits: ANI)

কলকাতা, ১৪ সেপ্টেম্বর: ক দিন আগে কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন শিলচরের প্রাক্তন সাংসদ সুস্মিতা দেব (Sushmita Dev)। সবংয়ের বিধায়ক-মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া (Manas Bhunia) র রাজ্যসভার আসনে সুস্মিতা দেবকে মনোনীত করল তৃণমূল (TMC)। রাজ্যের মন্ত্রী হওয়ায় রাজ্যসভা থেকে ইস্তফা দিয়েছেন মানস ভুঁইয়া (Manas Bhunia)। ভবানীপুর বিধানসভা উপনির্বাচনের ফলপ্রকাশের পরদিন, ৪ অক্টোবর রাজ্যসভার ভোট। আগামী সুস্মিতাকে সামনে রেখে উত্তর পূর্ব ভারতে নিজেদের প্রভাব বিস্তার করতে চাইছে তৃণমূল।

সংখ্যার বিচারে সুস্মিতা দেবের জয় কার্যত নিশ্চিত৷ তবে সুস্মিতার বিরুদ্ধে শেষ পর্যন্ত বিজেপি প্রার্থী দেয় নাকি জহর সরকারের মতো সুস্মিতা দেবও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রাজ্যসভায় যান, সেটাই এখন দেখার৷ আরও পড়ুন: Mamata Banerjee: মনোনয়ন পত্রে আড়াল করেছেন তথ্য, অভিযোগ তুলে ভবানীপুরে প্রার্থী মমতা ব্যানার্জির বিরুদ্ধে কমিশনে বিজেপি

দেখুন টুইট

শিলচরের বাঙালি মহিলা সুস্মিতার স্বচ্ছ ভাবমূর্তি, কাজের ইচ্ছায় দারুণ খুশি দিদি। সুস্মিতা হলেন প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা সন্তোষমোহন দেবের মেয়ে।  অসমের পাশাপাশি ত্রিপুরায় বিজেপিকে হারাতে সুস্মিতাকে মুখ করে লড়ার কথা ভাবছে তৃণমূল। ২০২৩ সালে ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচন। অভিষেক ব্যানার্জি-র নেতৃত্বে ত্রিপুরায় লড়ে বিজেপিকে চাপে রাখতে পেরে বেজায় খুশি দল। এবার ত্রিপুরায় সুস্মিতা দেবের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চাইছে দল। অসমে বিজেপিকে হারানোর অভিজ্ঞতা আছে সুস্মিতা দেবের। পশ্চিমবাঙলা থেকে তৃণমূলের হয়ে রাজ্যসভায় মনোনীত হওয়ায় সুস্মিতা দেব বলেছেন, 'আমি উচ্ছ্বসিত। মমতা দিদি ও অভিষেকের কাছে একই সঙ্গে কৃতজ্ঞ৷ আমার দলের দৃষ্টিভঙ্গিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে প্রস্তুত৷'

মঙ্গলবার তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) সোশ্যাল হ্যান্ডেলের তরফে ওই ঘোষণা করা হয়। মহিলাদের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যে ভাবনা, তা থেকে সমৃদ্ধ হবে সমাজ। রাজনীতিতে মহিলাদের যোগদান আরও বাড়বে। সেই অনুযায়ী এবার রাজ্যসভায় সুস্মিতা দেবকে মনোনীত করা হচ্ছে বলে জানায় তৃণমূল কংগ্রেস। মানস ভুঁইঞার আসনেই এবার সুস্মিতা দেবকে রাজ্যসভায় পাঠাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস।

দেখুন টুইট

লক্ষ্য এখন দেশজয়ের। শুধু রাজ্যের নেতা-কর্মীদের সুযোগ দিলেই হবে না, দেশের নেতা-কর্মীদের কথাও ভাবতে হবে। সে লক্ষ্যেই সুস্মিতাকে রাজ্যসভায় নিয়ে যাচ্ছে তৃণমূলে। ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনে দেশের রাজনীতিতে মজবুত অবস্থান পেতে হলে, বাংলার বাইরেও আসন পেতে হবে। সে লক্ষ্যে ত্রিপুরা, অসম সহ উত্তর পূর্ব ভারতকে খুবই জোর দিচ্ছে তৃণমূল।