CM Mamata Banerjee: সিএএ-র বিরোধিতার মাঝে মমতা ব্যানার্জির মমতাময়ী টুইট, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের 'জন গণ মন' নিয়ে গর্ব প্রকাশ
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Photo Credit: Twitter)

কলকাতা, ২৭ ডিসেম্বর: দেশজুড়ে সিএএ (CAA) এবং এনআরসি (NRC) বিরোধী আন্দোলনে উত্তপ্ত গোটা দেশ। ধর্ম সম্প্রদায়কে উপেক্ষা করে রাস্তায় নেমে সিএএ বিরোধী আন্দোলনে নেমেছে দেশের নাগরিক। বিবিধের মাঝে ঐক্যই যে ভারতের মূল মন্ত্র তা যে মানুষ ভুলে যাননি তা বিক্ষোভ থেকেই স্পষ্ট। একটি সিএএ আইন সারা ভারতজুড়ে বিক্ষোভের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এই পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির (CM Mamata Banerjee) করা একটি পোস্টে নস্ট্যালজিক হয়ে পড়লেন বাঙালি তথা আপামর দেশের নাগরিক। ১৯১১ সালে আজকের দিনেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা 'জন গণ মন' (Jana Gana Mana) দেশাত্মবোধক গানটি গাওয়া হয়েছিল। এই দিনটিকে কেন্দ্র করে মুখ্যমন্ত্রী টুইট করে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে (Rabindranath Tagore) শ্রদ্ধা জানান। তিনি টুইট (Tweet) করে লেখেন, "আজকের দিনে ১৯১১ সালে জন গণ মন' গানটি গাওয়া হয়। এতবছর পরেও এই গানটি দেশের সকল নাগরিককে একই সুরে বেঁধে রেখেছে এবং অনুপ্রাণিত করেছে। এই গানটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা। তিনি আমাদের গর্ব। তিনিই আমাদের একত্রে থাকার পথ দেখিয়েছেন"। আরও পড়ুন, দিনদুপুরে মেট্রো স্টেশনের বাইরে তরুণীর আপত্তিকর ছবি তোলায় আটক ব্যক্তি

জন গণ মন-অধিনায়ক জয় হে ভারতের জাতীয় সংগীত। ১৯১১ সালে জাতীয় কংগ্রেসের একটি সভায় এটি প্রথম গাওয়া হয়। ১৯৫০ সালে স্বাধীন ভারতের জাতীয় সংগীত হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে এর প্রথম স্তবকটি। বঙ্কিমচন্দ্র চ্যাটার্জির লেখা বন্দেমাতরম গানটিও সমমর্যাদায় জাতীয় সংগীতের স্বীকৃতি লাভ করে। বর্তমানে জন গণ মন ভারতের জাতীয় সংগীত বা রাষ্ট্রগীত (ন্যাশনাল অ্যানথেম) ও বন্দেমাতরম ভারতের জাতীয় স্তোত্র বা রাষ্ট্রগান (ন্যাশানাল সং) বিবেচিত হয়।