Viral: জাভার মোজেসমি ফরেস্ট পার্কে ধরা পড়েছে ডাইনোসর? ভাইরাল ভিডিও
ইন্দোনেশিয়ায় ডাইনোসর (Photo Credits: Video grab)

একেবারে শেষ লগ্নে পৌঁছে গেলেও ২০২০ এখনও অতীত হয়নি। আর এখন কি না আপনি আশা করছেন ডাইনোসর ফের বর্তমান? আজকের পরিস্থিতিতে এমন সম্ভাবনা কল্পনার চরম স্তর ছাড়া সম্ভব নয়। কিন্তু তাতে কী সোশ্যাল মিডিয়ায় তো ডাইনোসর ধরার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ইন্দোনেশিয়ায় নাকি ডাইনোসরটি ধরা পড়েছে। এটি ট্রাইসেরাটপ বর্গের ডাইনোসর, (Triceratops Dinosaur Caught) ৬৮ মিলিয়ন বছর আগে পৃথিবীতে ঘুরে বেড়াতো এই প্রজাতির ডাইনোসর। হুবহু তেমন দেখতে বিরাটকার প্রাণীটিকে বন্দি করেছে চারজন। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে প্রাণীটিকে বশে আনতে চারজন রীতিমতো তার সঙ্গে যুঝে চলেছে। কেউ কেউ বলছেন প্রাণীটিকে পূর্ব জাভার জঙ্গল থেকে ধরা হয়েছে। বাকিরা আবার বলছেন ব্রাজিলে এই ভীষণ দর্শন প্রাণীটির দেখা মিলেছে।

প্রাণীটির আগমনের উৎস নিয়ে ভিন্ন মত থাকাতেই স্পষ্ট হয়েছে যে কোথাও কিছু একটা গোলমাল তো রয়েইছে। প্রথম এটি একটি ভুয়ো প্রাণী। এমন একটি যান্ত্রিক পুতুল যা দেখতে প্রায় জীবন্তই। এরপর ট্রাইসেরাটপস প্রজাতির সেই ডাইনোসরের ছবি বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট থেকে অনলাইনে শেয়ার হয়েছে। যেহেতু ২০২০-তেই এমন সব ঘটনা ঘটছে যে অনেকেই আবার ডাইনসোরের প্রত্যাবর্তনকে বাস্তব বলেই ধরে নিয়েছেন। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বিরাটকার ডাইনোসরকে চারজনে মিলে একটা ট্রাক থেকে নামানোর চেষ্টা করছে। সুযোগ পেয়ে প্রাণীটি তার শক্তি প্রদর্শন করতে ছাড়ছে না। অনলাইনে ভিডিওটি শেয়ার করে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, ইন্দোনেশিয়ার পূর্ব জাভার মোজেসমি ফরেস্ট পার্কে রয়েছে ট্রাইসেরাটপস প্রজাতির ডাইনোসর। অন্যদিকে বাকিরা বলছেন ব্রাজিলের রেন ফরেস্ট থেকে ট্রাইসেরাটপস প্রজাতির এই জীবন্ত ডাইনোসরকে ধরা হয়েছে। আরও পড়ুন-Gmail Suffers Outage For Second Time: কানেক্টিভিটি ইস্যু, ফের বিশ্বজুড়ে বিপর্যস্ত জি-মেইল পরিষেবা

তবে নেটিজেনরা ভিডিও দেখেই চমৎকৃত হয়ে শেয়ার শুরু করেছেন। একবারও যাচাই করে দেখতে চাইছেন না বরং জীবন্ত ডাইনোসর এখনও রয়েছে ভেবে শেয়ার করে চলেছেন। কোনও রকম যাচাই না করে রীতিমতো আতঙ্কিত হয়ে মানুষ ভিডিওটি শেয়ার করে চলেছে। প্রাণীটি দেখতে তো ভয়াবহ, তবে চিন্তার কোনও কারণ নেই কেননা এটা বাস্তব নয়। তবে যে ইউজার প্রথমে ভিডিও ক্লিপটি শেয়ার করেছিলেন তিনি অতিরিক্ত আরও একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন যাতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে প্রাণীটি আসলে একটি যান্ত্রিক পুতুল। ফরেস্ট পার্কে এসে মানুষ সেই ডাইনোসরকে দেখছে। তাই ভয় পাবেন না, কোথাও জীবন্ত ডাইনোসরের অস্তিত্ব নেই।