Baisakhi 2024: এপ্রিলে শুরু পাঞ্জাবি নববর্ষ, জেনে নিন কবে বৈশাখী এবং এই দিনের গুরুত্ব...

বৈশাখী হল শিখ ধর্মের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উৎসব। বৈশাখী দিয়ে শুরু হয় শিখ ধর্মের নববর্ষ। প্রতি বছর বিক্রম সংবতের প্রথম মাসে, যখন সূর্য মেষ রাশিতে গমন করে তখন পালন করা হয় পবিত্র বৈশাখী উৎসব। এই কারণেই বৈশাখী উৎসবকে মেষ সংক্রান্তিও বলা হয়। বৈশাখী উৎসব ফসল কাটার উৎসব। পাঞ্জাব ও হরিয়ানায় বৈশাখী উৎসবের বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। এবার জেনে নেওয়া যাক ২০২৪ সালের বৈশাখীর তারিখ ও এই দিনের গুরুত্ব।

২০২৪ সালে বৈশাখী উৎসব পালিত হবে ১৩ থেকে ১৫ এপ্রিলের মধ্যে। শিখ ধর্মের বৈশাখীর দিন পালন করা হয় বাংলার পয়লা বৈশাখ, বিহারে সত্তুয়ান, আসামে বিহু, তামিলনাড়ুর পুথান্ডু এবং কেরালায় বিষু। বৈশাখী উৎসবের সময় রবি শস্য তোলার সময় হয়ে যায় এবং এই দিনে পুজো করা হয় শস্যের এবং ভালো ফলনের জন্য ঠাকুরকে ধন্যবাদ জানানো হয়। ধর্মীয় বিশ্বাস অনুসারে, প্রথমে রবি শস্য নিবেদন করা হয় অগ্নিদেবকে, এরপর ফসলের ভালো ফলনের জন্য একে অপরকে শুভেচ্ছা জানানো হয়। তারপর ওই ফসল দিয়ে তৈরি করা হয় খাবার।

বৈশাখী মূলত কৃষকদের উৎসব, এই দিনে তারা ভাংড়া করে প্রকৃতি ও ঈশ্বরের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানায়। এছাড়াও গুরুদ্বারে গিয়ে গুরু গ্রন্থ সাহিব পাঠ করে তারা। ভালো ফসল ছাড়াও, বৈশাখী উৎসব পালন করার প্রধান কারণ হল ১৬৯৯ সালে এই দিনে শিখদের দশম ও শেষ গুরু গোবিন্দ সিং প্রতিষ্ঠা করেছিলেন খালসা পন্থ। ভাপুরাণে উল্লেখ আছে, বৈশাখীর দিনে গঙ্গা স্নান করা হলে অশ্বমেধ যজ্ঞের সমতুল্য ফল পাওয়া যায়। এই দিন থেকে শুরু হয় সৌর বছরও। এই দিনে সূর্যের আরাধনা করলে গোটা বছর উন্নতি হয়।