Omicron: ডেল্টা নয়, করোনাভাইরাসের 'গ্লোবাল ভ্যারিয়েন্ট' হতে পারে ওমিক্রন, আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের
Omicron (Photo Credit: File Photo)

সিঙ্গাপুর, ৩০ ডিসেম্বর: ডেল্টার মতো প্রাণঘাতী না হলেও, ওমিক্রন অত্যন্ত সংক্রমক। ডেল্টার চেয়ে কয়েক গুণ বেশি হারে ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাসের (Coronavirus) এই নয়া প্রজাতি। ফলে আগামী কয়েক সপ্তাহ বা মাসে গোটা বিশ্ব জুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত হবে ওমিক্রন। ডেল্টাকে পিছনে ফেলে গোটা বিশ্বে হু হু করে বেড়ে যাবে করোনাভাইরাসের এই প্রজাতি। এমনই আশঙ্কা সিঙ্গাপুরের (Singapore) একদল বিশেষজ্ঞের। বুধবার সিঙ্গাপুরে প্রায় ১৭০ জন ওমিক্রনে সংক্রমিত হন। একদিনে ১৭০ জন সংক্রমিত হওয়ায়,  ওমিক্রন (Omicron) নিয়ে এবার আশঙ্কা প্রকাশ করলেন সিঙ্গাপুরের বিশেষজ্ঞরাও। প্রসঙ্গত আফ্রিকা ছাড়া প্রায় গোটা বিশ্বে এখনও পর্যন্ত করোনাভাইরাসের ডেল্টা প্রজাতি সবচেয়ে বেশি থাবা বাসচ্ছে। শিগগিরই এই পরিসংখ্যান পালটে যেতে পারে। ডেল্টার জায়গায় করোনাভাইরাসের 'গ্লোবাল ভ্যারিয়েন্ট' হিসেবে নাম উঠে আসতে পারে ওমিক্রনের। এমনই মনে করছেন সিঙ্গাপুরের একদল বিশেষজ্ঞ।

সিঙ্গাপুরের বিশেষজ্ঞদের মতো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডিরেক্টর টেডরসের গলাতেও শোনা যায় আশঙ্কার একই সুর। তিনি বলেন, করোনার নয়া প্রজাতি  ওমিক্রন অত্যন্ত সংক্রমক। ডেল্টা এবং ওমিক্রন একসঙ্গে হামলা চালালে, প্রায় গোটা বিশ্বের স্বাস্থ্য পরিষেবা ভেঙে পড়তে পারে। আসতে পারে সুনামি। ডেল্টা (Delta) যেভাবে গোটা বিশ্ব জুড়ে হু হু করে ছড়িয়ে পড়ে, ওমিক্রন তার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি সংক্রমক। ফলে দ্রুত বিশ্বরে প্রতিটি ঘরে ওমিক্রনের থাবা পৌঁছতে দেরি হবে না। ফলে মহামারীকালে ফের আরও একবার সুনামি শুরু হতে পারে বলে আশঙ্কা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার।

আরও পড়ুন: Omicron: ডেল্টা, ওমিক্রনের থাবায় সুনামি আসতে পারে, ভেঙে পড়তে পারে স্বাস্থ্য় ব্যবস্থা, আশঙ্কা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

টেডরস বলেন, বর্তমানে ওমিক্রন যেভাবে গোটা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে থাবা বসাচ্ছে, তাতে যে কোনও সময় স্বাস্থ্য পরিষেবা ভেঙে পড়তে পারে। মহামারীর এই ঢেউ ঠেকাতে স্বাস্থ্য কর্মীদের উপর ফের গুরুতর প্রভাব পড়তে পারে। যার জেরে জনজীবন নতুন করে ব্যাহত হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (WHO) তরফে।