Aung San Suu Kyi's 5 Year Jail: দুর্নীতি মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড মায়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চি-র
Aung San Suu Kyi ( Photo Credits: ANI)

নেপিডো, ২৭ এপ্রিল: দুর্নীতি মামলায় (Corruption Case) ৫ বছরের কারাবাসের সাজা পেলেন মায়ানমারের (Myanmar) ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চি (Aung San Suu Kyi)। তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা প্রথম দুর্নীতির মামলায় তিনি দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। বুধবার মায়ানমারের একটি আদালত সু চি-কে ৫ বছরের কারাবাসারে সাজা শুনিয়েছে। জানা গিয়েছে, ইয়াঙ্গুন শহরের এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে ৬ লাখ ডলার এবং ১১ কেজি সোনা ঘুষ নেওয়ার ঘটনায় অভিযোগে ওঠেছিল সু চি-র বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন তিনি।

ফিও মিন থেইন নামের ওই ব্যক্তি ২০২১ সালের অক্টোবরে সাক্ষ্য দিয়েছিলেন যে তিনি সু চি -কে ঘুষ দিয়েছিলেন। যদিও গত বছর সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হওয়া সু চি তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন। তাঁর সমর্থকরা এবং স্বাধীন আইন বিশেষজ্ঞরা এই বিচারকে অন্যায্য বলে অভিহিত করেছেন। এর আগে অন্য একটি মামলায় ইতিমধ্যেই ৬ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে ৭৬ বছর বয়সি সু চি-কে। সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে উস্কানি দেওয়া, কোভিড নিয়ম লঙ্ঘন এবং একটি টেলিযোগাযোগ আইন ভঙ্গ করার জন্য তিনি দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। আরও পড়ুন: Kamala Harris Tested Positive For COVID-19: করোনায় আক্রান্ত মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস, রয়েছেন নিভৃতবাসে

সু চি-র বিরুদ্ধে মোট ১১টি দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। প্রতিটি মামলায় সর্বোচ্চ সাজার মেয়াদ ১৫ বছরের কারাদণ্ড। বুধবার প্রথম মামলায় সাজা পেলেন সু চি।