Saradha Scam: সারদার টাকা ‘জাগো বাংলা’র অ্যাকাউন্টে, ডেরেক ও’ব্রায়েনকে জেরা সিবিআই-এর
তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ওব্রায়েন। (Photo Credits: Facebook/ Derek O'Brien)

কলকাতা, ৯ আগস্ট: সারদা মামলায় (Saradha Scam) এবার সিবিআই-এর (CBI) জেরার মুখ তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন (MP Derek O'Brien)। শুক্রবার সিবিআই কর্তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে যান তৃণমূল সাংসদ। বেলা আড়াইটে নাগাদ সেখানে পৌঁছেছেন তিনি। এখনও জেরা চলছে। জানা গিয়েছে, সারদার আর্থিক লেনদেন বিষয়েই ডেরেককে জেরা করবেন সিবিআই কর্তারা। গত ২৫ জুলাই এই মর্মে ডেরেক ও’ব্রায়েনকে তলব করেছিল সিবিআই। তবে সেই সময় সংসদে বর্ষাকালীন অধিবেশন চলছিল। তাই সময় চেয়ে নিয়েছিলেন ডেরেক। গত মঙ্গলবার অধিবেশন শেষ হতেই শুক্রবার সিবিআই-এর কলকাতা দপ্তরে চলে আসেন তিনি। আরও পড়ুন-সারদার ২৯ লক্ষ টাকা ফেরত দিতে চান, ফের ইডির জেরার মুখে শতাব্দী রায়

জানা গিয়েছে, সারদার অ্যাকাউন্ট থেকে মোটা অঙ্কের অর্থ গিয়েছে তৃণমূলের বেশ কয়েকটি অ্যাকাউন্টে। পরে তদন্তে নেমে সিবিআই কর্তারা জানতে পারেন। ওই অ্যাকাউন্টগুলি আসলে তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপত্র ‘জাগো বাংলা’র (Jago Bangla) নামে রয়েছে। যেসময় এই লেনদেন হয়েছে সেই সময় ‘জাগো বাংলা’র প্রকাশকের পদে ছিলেন ডেরেক ও’ব্রায়েন। তাই এই লেনদেন সংক্রান্ত বিষয়ে তাঁর সঙ্গেই কথা বলতে চেয়েছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। ‘জাগো বাংলা’র সেই সময়কার অ্যাকাউন্ট্যান্ট ছিলেন সুব্রত বক্সি। এই কারণে সুব্রত বক্সিকেও জেরা করেছে সিবিআই। তাঁর বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। এবার ঠিক একই কারণে ডেরেক ও’ব্রায়েনকে জেরা করছে সিবিআই। দেখা য়াক তিনি কী বলেন। তাঁর সঙ্গে সুব্রতবাবুর বক্তব্যে কতটা সাদৃশ্য থাকে সবটাই খুঁটিয়ে দেখা হবে।

কী কারণে সারদা গোষ্ঠীর সঙ্গে জাগো বাংলার আর্থিক লেনদেন হয়েছে তা জানতেই এই জেরা। ঠিক কত টাকা নেওয়া হয়েছে, কেন নেওয়া হয়েছে। তার নথিপত্রও খতিয়ে দেখবে সিবিআই। এর আগে সুব্রতবাবুও অ্যাকাউন্ডের হিসেবে নিকেশের নথি সিবিআই কর্তাদের দেখিয়েছেন। এখন দেখার ডেরেক ও’ব্রায়েন এবিষয়ে ঠিক কতটা কী বলেন। আগামী পুজোর মধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে সারদা মামলার চার্জশিট জমা দিতে চলেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। তার আগেই তদন্তে শেষ করতে হবে। দিওয়ালির আগেই হয়তো সারদা মামলার রায় দিতে পারে দেশের শীর্ষ আদালত।