Chandrayaan 3 Update: দায়িত্ব সেরে ঘুমের দেশে প্রজ্ঞান, ভোর হলে জাগবে কি? আশাবাদী ইসরো
Rover Pragyan (Photo Credits: ISRO)

আপাতত রোভার প্রজ্ঞানের দায়িত্ব শেষ হল। এবার তার ঘুমানোর পালা (Rover Pragyan in Sleep Mode)। সূর্যশক্তি দ্বারা চালিত প্রজ্ঞান কিংবা ল্যান্ডার বিক্রম (Lander Vikram) চাঁদে অন্ধকার নামলে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়বে। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে সফলভাবে ১১ দিন অতিক্রম করেছে প্রজ্ঞান। গুটি গুটি পায়ে ১০০ মিটার দূরত্ব পার করে ফেলেছে। সংগ্রহ করেছে বহু তথ্য। কিন্তু চাঁদে এবার ধীরে ধীরে সন্ধ্যা নামছে। সৌরশক্তি ব্যাতিত প্রজ্ঞান এবং বিক্রম যে অকেজো তা আগেই জানিয়েছিল ইসরো। তাই চাঁদে এক নিরাপদ স্থানে প্রজ্ঞানকে ঘুম পারিয়ে দিয়েছে ইসরো। শনিবার রাতে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থার তরফে টুইট করে জানানো হয়েছে, প্রজ্ঞান রোভার তার মিশনের উদ্দেশ্যগুলি সম্পন্ন করেছে। এটি একটি নিরাপদ স্থানে পার্ক করা হয়েছ। এর ভিতরে থাকা যন্ত্রগুলি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে'।

চাঁদে রাত নামলে তাপমাত্রা সাংঘাতিক হারে কমে যাবে। মাইনাস ২০০ ডিগ্রি পার করবে। সেই তাপমাত্রায় প্রজ্ঞান কিংবা বিক্রমের টিকে থাকা বেজায় দায়। তবে এখনই হাল ছাড়ছে ইসরো। তাই চাঁদের বুকে সন্ধে নামার মুখেই প্রজ্ঞানকে ঘুম পারিয়ে তার ভিতরের সমস্ত যন্ত্রাংশ বন্ধ রেখেছে। ১৪ দিন পর আবার চাঁদে সূর্যোদয় হবে (চাঁদে সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত সময় লাগে পৃথিবীর দিন)। ইসরো তরফে জানানো হয়েছে, সৌর প্যানেলটি ২২ সেপ্টেম্বর চাঁদের পরবর্তী সূর্যোদয়ের সময়ে আলো পাবে। তাই ইসরো আশা করছে, সেই সময়ে পুনরায় জেগে উঠবে ভারতের চন্দ্রদূত। অন্যথায় চিরকালের জন্যে চাঁদের রয়ে যাবে সে।

ইসরো-র টুইট... 

গত ২৩ সেপ্টেম্বর চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে সফল ভাবে অবতারণ করেছিল তৃতীয় চন্দ্রযানের ল্যান্ডার বিক্রম। চাঁদের ১৪ দিনের জীবনকাল দিয়েই প্রজ্ঞান এবং বিক্রমকে পাঠিয়েছিল ইসরো। তবে ২২ সেপ্টেম্বর প্রত্যাশিত সূর্যশক্তিতে যদি ঘুমিয়ে থাকা প্রজ্ঞান জেগে উঠতে পারে সেই জন্যেই চাঁদে সন্ধ্যা নামার মুখে তাকে নিষ্ক্রিয় করে দিয়েছে ইসরো।