Fact Check: মেটিয়াবুরুজ নিয়ে সোশাল মিডিয়ায় ঘোরা ভিডিয়ো ভুয়ো, জানাল কলকাতা পুলিশ
(Photo: Kolkata Police)

কলকাতা, ২৬ এপ্রিল: দেশে করোনাভাইরাসের (Coronavirus) মহামারী যত মারাত্মক আকার নিচ্ছে ততই বাড়ছে এই সংক্রান্ত ভুয়ো খবর (Fake News)। আর সেই সব ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে। এই ধরনের মহামারী ও সঙ্কেটের সময় কিছু লোক সোশাল মিডিয়ায় ভুয়ো বার্তা ছড়িয়ে দিচ্ছেন, আর সেই সব বার্তা যাচাই না করে শেয়ার হচ্ছে। এদিকে আবারও মেটিয়াবুরুজ নিয়ে একটি ভুয়ো ভিডিয়ো ছড়িয়েছে সোশাল মিডিয়ায়। ভিডিয়ো ফেসবুকে পোস্ট করে লেখা হয়েছে, ইফতারের আগে ওই এলাকায় ভিড়। প্রচুর মানুষ কেনাকাটা করছেন। নেই কোনও সামাজিক দূরত্বের মানার চিহ্ন। আজ কলকাতা পুলিশ (Kolkata Police) জানিয়েছে ভিডিয়োটি ভুয়ো। ওটি মেটিবুরুজের (Metiabruz) নয়।

কলকতা পুলিশের ডিসিপি পোর্ট-র টুইটার হ্যান্ডেলে লেখা হয়েছে, এই ভিডিয়াটি গতকাল থেকে সোশাল মিডিয়ায় ঘুরছে। বলা হচ্ছে ইফতারের আগে এলাকার ছবি। তবে CCTV ফুটেজে প্রমাণিত যে ভিডিওয়ো নকল। একটি নির্দিষ্ট মামলা শুরু করা হয়েছে এবং এই ভুয়ো খবর ছড়িয়ে দেওয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।" আরও পড়ুন: Fact Check: মেটিয়াবুরুজে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ, এই ভিডিয়ো কি আসল?

এর আগে মেটিয়াবুরুজ নিয়ে ভুয়ো ভিডিয়ো ছড়ানোর অভিযোগে উত্তর চব্বিশ পরগনার গাইঘাটা থেকে হিমাংশু দেবনাথ নামে এক ব্যক্তিকে শুক্রবার গ্রেপ্তার করে কলকাতা পুলিশের সাইবার থানা। গত ২৯ মার্চ হিমাংশু নিজের ফেসবুক ওয়ালে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন। যেখানে দেখা যায়, বেশ কিছু লোক পুলিশের উপর হামলা করছে। আদতে সেটি গুজরাতের সুরাটের ভিডিয়ো হলেও হিমাংশু সেটিকে কলকাতার মেটিয়াবুরুজের সাম্প্রতিক ভিডিয়ো বলে দাবি করেন। সোশাল মিডিয়ায় মেটিয়াবুরুজের ঘটনা হিসেবেই ভাইরাল হয়ে যায় তা। এই ঘটনাটি নজরে আসতেই সেটি ফেক নিউজ বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেয় কলকাতা পুলিশ।