World Health Day 2024: প্রচণ্ড গরমে শরীর হাইড্রেটেড রাখতে জল যথেষ্ট নয়, দৈনন্দিন তালিকায় কোন কোন পানীয়ের পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা
Summer (Photo Credits: Pixabay)

World Health Day: পছন্দ মত পোশাক হোক কিংবা মনের মত সাজ, এই দুয়ের জন্যের গ্রীষ্মকাল সেরা। শীতের সোয়েটার বা বর্ষার ছাতা ছাড়া নির্বিঘ্নে সাজবাহার করা যায়। তবে গ্রীষ্মের দিনে সকাল হোক কিংবা বিকেল, সন্ধ্যা সানস্ক্রিন যেমন 'মাস্ট'। তেমনই গরমে র‍্যাশ, চুলকানি, অতিরিক্ত ঘাম, ঘাম থেকে দুর্গন্ধ সমস্ত কিছু দূরে রাখতে অত্যন্ত প্রয়োজন নিজেদের হাইড্রেটেড রাখা। যত দিন যাচ্ছে গরমের মাত্রা যে হারে বাড়ছে তাতে শরীর ডি-হাইড্রেটেড (Dehydration) হলেই জীবন ঝুঁকি।

অন্যদিকে বৈশাখ মাস এখনও পড়েনি। চৈত্র শেষের আগেই বিদায় নিয়েছে বসন্ত। তীব্র গরম, তাপপ্রবাহে নাভিশ্বাস অবস্থা। মাথার ঘাম পায়ে ফেলেই নিত্য গন্তব্যে ছুটতে হচ্ছে স্কুল, কলেজ পড়ুয়া এবং অফিসকর্মীদের। প্রচণ্ড গরমে বাচ্চা থেকে বুড়ো প্রত্যেকের প্রয়োজন শরীর ঠাণ্ডা থাকা, হাইড্রেটেড রাখা। যা আপনাকে হজমেও সাহায্য করবে। শরীর হাইড্রেটেড রাখতে উপযুক্ত পরিমাণ জল খাওয়া ভীষণ প্রয়োজন। রিপোর্ট বলছে, একজন মানুষের শরীরে তাঁর গড় ওজনের অর্ধেক বা দুই-তৃতীয়াংশ জল দ্বারা গঠিত। প্রস্রাবের মাধ্যমে আমাদের শরীর থেকে জল বেরিয়ে যায়। প্রবল গরমে ঘামের মাধ্যমে জল নির্গত হয়। শরীরে জলের ঘাঁটতি মেটাতে শুধুই কি জল পান যথেষ্ট! বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে (World Health Day 2024) কী পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা, জানুন...

গুরুগ্রামের সি কে বিড়লা হাসপাতালের ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের কনসালটেন্ট চিকিৎসক ডাঃ তুষার তায়াল বলছেন, শরীর থেকে জল নির্গত হওয়ার প্রধান উৎস হল প্রস্রাব। একজন ব্যক্তি শরীরের চাহিদার উপর নির্ভর করে নিত্য ৮০০ মিলি থেকে ২ লিটার প্রস্রাব বের করে। প্রতিদিন যদিও এই পরিমাণে পরিবর্তন ঘটতে পারে। প্রতিদিন, ফুসফুস প্রায় ৭৫০ মিলিলিটার জল ত্যাগ করে যা ত্বক থেকে বাষ্পীভূত হয়। এছাড়া শরীর থেকে জল নির্গত হওয়ার কারণ হিসাবে গরমে অত্যধিক ঘামকেও চিহ্নিত করেছেন তিনি।

বিশেষত গরমকালে একজন প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তির দৈনিক ৩-৪ লিটার জল খাওয়া জরুরি। তবে কেবল জল খেয়েই নয় শরীরে হাইড্রেশন জোগাতে রয়েছে আরও কিছু বিকল্প। ফাস্ট অ্যান্ড আপ-এর সার্টিফাইড নিউট্রিশন কনসালটেন্ট জাহ্নবী আগরওয়াল জানাচ্ছে,

  • ইলেক্ট্রোলাইট-সমৃদ্ধ ডাবের জল পান করুণ। যা শরীরে খনিজ পদার্থ পুনরায় পূরণে সহায়তা করে।
  • প্রোবায়োটিক সমৃদ্ধ বাটারমিল্ক হাইড্রেশনে দারুণ কাজ করে।
  • পান করুণ লেবুর জল। যাতেও রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ইলেক্ট্রোলাইট।
  • তালিকায় রাখতে পারেন মশলা সোডা।
  • সর্বোপরি সেই সমস্ত পানীয় পান করুণ যাতে রয়েছে ইলেক্ট্রোলাইট।