Indian Airlines: ২৫ মে থেকে ভারতের আকাশে উড়বে আন্তঃদেশীয় বিমান, জেনে নিন নয়া টিকিট মূল্য
এয়ার ইন্ডিয়া (Photo Credits: PTI)

নতুন দিল্লি, ২২ মে: আগামী ২৫ আগস্ট পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহে ৮ হাজার ৪২৮টি বিমান চালাবে ভারতীয় বিমান সংস্থা (Indian airlines)। আগামী তিনমাস এই ব্যবস্থাই বলবৎ থাকবে। ভারতে আগামী সোমবার ২৫ মে থেকে আন্তঃদেশীয় বিমান পরিষেবা চালু হবে। বৃহস্পতিবার দেশের প্রতিটি বিমান সংস্থার সঙ্গে অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রকের বৈঠকের পরেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। অসমারিক বিমান পরিবহনের ডিরেক্টর জেনারেলের অফিসেই বসেছিল বৈঠক। সামাজিক দূরত্ব বজায়ের গাইড লাইন মেনে প্রতিটি বিমান সংস্থার ২জন প্রতিনিধিকে বৈঠকে অংশগ্রহণের অনুমতি দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, গত ২৪ মার্চ মধ্যরাত থেকে আন্তঃদেশীয় উড়ান বাতিল করে কেন্দ্র।

এই বিমান চলাচল শুরুর প্রসঙ্গ উঠতেই টিকিটের দামও বেড়ে গেল। এই ফ্লাইটগুলির টিকিট মূল্য ২ হাজার থেকে শুরু করে ১৮ হাজার ৬০০ টাকার মধ্যে হবে। কম দূরত্বের ফ্লাইট এ ক্যাটেগরি ভুক্ত। আর বেশি দূরত্বের ফ্লাইট জি ক্যাটেগরি ভুক্ত। প্রতিটি বিভাগেই সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন ভাড়ার ব্যবস্থা রয়েছে। ৪০ মনিট বা তার কম দূরত্বের ফ্লাইটে এ শ্রেণিতে পড়ছে। এক্ষেত্রে টিকিটের দাম হতে পারে ২ হাজার থেকে ৬ হাজারের মধ্যে। বি শ্রেণিতে দূরত্ব ৪০ মিনিট থেকে ৬০ মিনিট বা একঘণ্টা পর্যন্ত হতে পারে। এসব ক্ষেত্রে টিকিটের দাম আড়াই হাজার থেকে সাত হাজার ৫০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। সি শ্রেণিতে টিকিটের দাম তিন হাজার থেকে ৯ হাজার টাকা। ডি শ্রেণিতে টিকিটের দাম সাড়ে তিন হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা। এই মূ্ল্যের টিকিট মিলবে দিল্লি মুম্বই রুটে। আরও পড়ুন- CM Mamata Banerjee On Cyclone Amphan: ‘আম্ফান ঘূর্ণিঝড়ের তীব্রতা আয়লার থেকে অনেক বেশি, করোনার থেকেও ভয়াবহ’, মমতা ব্যানার্জি

একইভাবে ই শ্রেণিতে টিকিটের মূল্য ৪ হাজার ৫০০ থেকে ১৩ হাজার টাকা। এফ শ্রেণিতে টিকিট মূল্য ৫ হাজার ৫০০ থেকে ১৫ হাজার ৭০০ টাকা পর্যন্ত হবে। সবথেকে দীর্ঘতম রুটে জি শ্রেণিতে টিকিটের মূল্য ৬ হাজার ৫০০ থেকে ১৮ হাজার ৫০০ টাকা। বিমান সংস্থার যাত্রীদের জন্য সুনির্দিষ্ট গাইড লাইনও তৈরি হয়েছে। বিমানে যাত্রা করতে হলে প্রত্যেক যাত্রীকেই সেই গাইড লাইন মানতে হবে। যেমন কনটেইনমেন্ট জোনে যাঁরা থাকেন তাঁরা বিমানে যাতায়াত করতে পারবেন না। একইভাবে কোভিড-১৯ পজিটিভ রোগীর জন্যও বিমানের যাত্রা বন্ধ। যাত্রীদের আরোগ্য সেতু অ্যাপের মাধ্যমে সুস্থতার প্রমাণ দিতে হবে। সেই সঙ্গে যাত্রীকে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে। বিমান সংস্থা কাবার সরবরাহ করবে না। বিমান ওড়ার অন্তত দু’ঘণ্টা আগে যাত্রীকে বিমানবন্দরে পৌঁছাতে হবে।