Winter In West Bengal: শীতের কনানিতেই বছর শেষ ও বর্ষবরণ, জানালো আবহাওয়া দপ্তর
শীত (প্রতীকী ছবি: File Photo)

কলকাতা, ৩০ ডিসেম্বর: বর্ষবরণে হাজির থাকছে জমাটি ঠান্ডা। তাউ উদযাপনেও কোনও ঘাটতি রাখতে নারাজ উৎসবপ্রিয় বাঙালি। তবে বাদ সেধেছে করোনার নতুন স্ট্রেন। এতদিন তা দেশে অন্যান্য রাজ্যে পাওয়া গেলেও আজ হাতেগরম প্রমাণ মিলল কলকাতায়। মেডিক্যাল কলেজের এক চিকিৎসকের ছেলে সম্প্রতি ব্রিটেন থেকে শহরে ফিরেছেন। তাঁর শরীরেই মিলেছে করোনার এই নতুন প্রজাতির সন্ধান। ওই যুবককে আপাতত কল্যাণীর এনআইবিজিতে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে শীতের আমেজে (Winter In West Bengal) ক্রিসমাসে পার্কস্ট্রিটের ভিড় চিন্তা ধরিয়েছে স্বাস্থ্য কর্তাদের। বর্ষবরণ উদযাপনে মানুষ যাতে এতটাও লাগামছাড়া ঘোরাঘুরি করতে না পারে সেজন্য কলকাতা হাইকোর্ট ইতিমধ্যেই নির্দেশিকা জারি করেছে। কারণ নতুন প্রজাতির করোনার সংক্রমণের ক্ষমতা পুরোনোটির থেকে ৭০ গুণ বেশি।

গতকাল শহরে ১১ ডিগ্রিতে ছিল ঠান্ডা। আজ তা ১২-র কোঠায়। যা স্বাভাবিকের তুলনায় ১ ডিগ্রি কম। আলিপুরের হাওয়া অফিস জানিয়েছে, বছর শেষের দিন ও বর্ষবরণে পারদ আরও নামবে। দক্ষিণবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায় শৈত্যপ্রবাহ চলবে। কলকাতায় ১১-১২ ডিগ্রির আশপাশে পারদ ওঠানামা করলেও জেলা গুলিতে আরও ২ ডিগ্রি কমতে পারে। দিঘাতে এই মুহূর্তে ঠান্ডা দশ ডিগ্রির আশপাশেই রয়েছে। আট নয়ে নেমেছে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার পারদ। লেপ, কম্বল, সোয়েটারে মুড়ে বাঙালি বর্ষশেষে শীতের আমেজে উদযাপনে মেতেছে। আরও পড়ুন-Mamata Banerjee pays tribute to Netaji: ৭৭ বছর আগে এই দিনে প্রথম পোর্ট ব্লেয়ারে উড়েছিল তেরঙ্গা পতাকা , টুইটারে নেতাজিকে শ্রদ্ধার্ঘ্য মমতার

এদিকে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা না থাকলেও উত্তর পশ্চিম ভারতে বৃষ্টি ও তুষারপাতের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, সৌজন্য পশ্চিমী ঝঞ্ঝা। এমনিতেই দিল্লিতে এখন ৩ ডিগ্রির নিচে নেমেছে পারদ। এর বেশি ঠান্ডা জাঁকিয়ে বসলে কী হবে এখনই বোঝা যাচ্ছে না। তবে মৌসম ভবন জানিয়েছে, আগামীদুদিন পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, উত্তরাখণ্ড ও দিল্লিতে কনকনানি ঠান্ডা অনুভূত হবে। এর প্রভাবে দক্ষিণের বেশ কয়েকটি জায়গায় নামতে পারে বৃষ্টি।