Cyclone Jawad Update: ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের গেরো, শনিবার থেকে বৃষ্টিতে ভাসবে দক্ষিণবঙ্গ
Rain, Representational Image (Photo Credits: File Photo)

কলকাতা, ৩ ডিসেম্বর: আসছে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ। আন্দামান সাগরে নিম্নচাপটি তৈরি হয়ে ইতিমধ্যেই দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে সে। আজ গোটা দিনের মধ্যে শক্তি বাড়িয়ে একেবারে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়ে আগামী কাল ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে আছড়ে পড়বে। এর প্রভাবে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টিপাত হবে। সঙ্গে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। আজ শুক্রবার কলকাতার আকাশে মেঘের দেখা মিললেও বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই।  তবে মেঘলা আকাশের কারণে তাপমাত্রা প্রায় ২ ডিগ্রি বেড়ে যাবে। শীতের অনুভূতি উধাও হবে সমগ্র দক্ষিণবঙ্গ থেকে। শনিবার সকাল থেকেই শুরু হবে বৃষ্টি। দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। আরও পড়ুন-Cyclone Jawad: ঘূর্ণিঝড় 'জওয়াদ' আছড়ে পড়বে ৪ ডিসেম্বর, বাংলার ৫ জেলায় ভারী বৃষ্টির সতর্কতা

একই সঙ্গে হাওড়া, হুগলি ও কলকাতায় হালকা বৃষ্টি হবে। তবে রবিবার বাড়বে বৃষ্টির পরিমাণ। দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই হবে বৃষ্টি। এদিকে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের আগমনে সরকারি তরফে বিভিন্ন সতর্কবার্তা জারি হয়েছে। ইতিমধ্যেই জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর ১৬টি দল চলে এসেছে রাজ্যে। রাজ্য প্রশাসনের তরফে কন্ট্রোল রুম খুলে পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য তদারকি শুরু হয়েছে। মৎস্য জীবীদের এই তিনদিন সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। তাঁদের নৌকা শক্ত করে নিরাপদ জায়গায় বেঁধে রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

বৃষ্টি শুরু হলে  বন্যা প্রবণ এলাকার বাসিন্দাদের অপেক্ষাকৃত উঁচু জায়গায় আশ্রয় নিতে বলা হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ নথি প্লাস্টিকে মুড়িয়ে সঙ্গে রাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও দেশলাই, টর্চ, হ্যারিকেন, জলশোধনকারী ওষুধপত্র, প্রয়োজনীয় ওষুধ সঙ্গে রাখতে বলা হয়েছে। দুর্যোগের খবর পেলেই শুকনো খাবার, পানীয়জল ও প্রয়োজনীয় জ্বালানির বন্দোবস্ত করতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে গুজবে কান না দিয়ে প্রশাসনের বার্তার উপরে নজর রাখতে বলা হয়েছে।