Coronavirus In West Bengal: হোম কোয়ারান্টিনে থাকা এনআরএস হাসপাতালের আরও ৪০ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ
এনআরএস হাসপাতাল (Photo: IANS)

কলকাতা, ৮ এপ্রিল: এনআরএস হাসপাতালের (NRS Hospital) চিকিৎসক, নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মীসহ আরও ৪০ জনের কোভিড-১৯ (COVID 19) রিপোর্ট নেগেটিভ এল। ৮৫ জনকে হোম কোয়ারান্টিনে পাঠানো হয়েছিল তাঁদের মধ্যে ৭৩ জনেরই সংক্রমণ হয়নি। বাকি ৬ জনের রিপোর্টের অপেক্ষায় রয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এনআরএস হাসপাতালে এক করোনা রোগীর মৃত্যুর পর স্বাস্থ্য দফতরে। এনআরএসে করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত যুবকের মৃত্যুর পর কোয়ারান্টিনে রাখা হয় হাসপাতালের ৮৫ জনকে।

সংবাদ প্রতিদিনের খবর অনুযায়ী, গত ৩০ মার্চ মহেশতলার বাসিন্দা ৩৪ বছর বয়সি এক যুবক এনআরএস হাসপাতালে ভরতি হন। দিনদুয়েক পর ১ এপ্রিল রাতে তাঁর নানা উপসর্গ ধরা পড়ে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই রোগীর উপসর্গের কথা কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। মেডিসিন ওয়ার্ডে রেখেই তাঁর চিকিৎসা চলছিল। অভিযোগ, নিয়ম মেনে তাঁকে আইসোলেশনে রাখা হয়নি। পরিবর্তে ওই যুবককে রাখা হয় আইসিইউতে। পরেরদিনই যুবকের নমুনা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। ইতিমধ্যে ওই যুবক মারা যান। রিপোর্ট হাতে আসার পরই জানা যায় ওই যুবক করোনা আক্রান্ত। তারপরই তাঁর সংস্পর্শে আসা ৮৫ জনকে পাঠানো হয় হোম কোয়ারেন্টিনে। সর্বসাধারণের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয় হাসপাতাল। আরও পড়ুন: Coronavirus Fear In Kolkata: করোনা আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতাল ফেরত বৃদ্ধকে মারধর, গাছের সঙ্গে বাঁধা হল

মঙ্গলবার ৩০ জন এবং বুধবার আরও ৪০ জনের রিপোর্ট হাতে আসে। মোট ৭০ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ হওয়ায় কিছুটা স্বস্তিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বাকি ১৫ জনের রিপোর্টের দিকে তাকিয়ে সকলেই। যদিও বিশেষজ্ঞের দাবি, ওই যুবকের মৃত্যুর মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই তাদের পরীক্ষা করা হয়েছে। তার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে ঠিকই। তবে ওই ৭০ জনের শরীরে পরবর্তীকালে যে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা যাবে না, তার কোনও নিশ্চয়তা নেই। তাই সবাইকে আরও কয়েকদিন হোম কোয়ারান্টিনে রাখা উচিত।