১৮ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া শিশুকে বাড়ি ফেরাল ফেস অ্যাপ, ভাবা যায়?
প্রতীকী ছবি(Photo Credit: Social Media)

বেজিং, ২৩ জুলাই:  এই ফেস অ্যাপ নিয়ে যেমন ফেসবুক ইউজারদের হুড়োহুড়ির শেষ নেই। তেমন এর থেকে ম্যালওয়ারের ভয়ও ভুলে থাকা যায় না।  তবে এই ফেসুক অ্যাপের সাহায্যেই ১৮ বছর আগে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া এক শিশুকে উদ্ধার করল চিন দেশের পুলিশ।  ওই শিশু এখন বছর একুশের যুবক, নাম ইউ উইফে। সে বর্তমানে চিনের গুয়ানঝাউ প্রদেশের এক কলেজে পড়াশোনা করে। প্রথমে তো ইউ বিশ্বাসই করতে চাননি পুলিশের কথা, যে সে একজন দত্তক সন্তান। তাঁর আসল বাবা অন্য কেউ। আরও  পড়ুন-বিশ্বকাপে হেরে যাওয়ার দুঃখে বুড়ো হয়ে গেলেন বিরাট কোহলি?

১৮ বছর আগে বাবার কাছ থেকে হারিয়ে গিয়েছিলেন ইউ। তখন তাঁর বয়স ছিল তিন বছর। প্রায় দুই দশক পর নিজের সেই হারানো ছেলেকে ফিরে পেলেন বাবা। সৌজন্যে সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ফেস অ্যাপ। ওই অ্যাপ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে কাজ করে। প্রযুক্তির সেই চাবিকাঠি ব্যবহার করেই সাফল্য পেল চিনা পুলিশ। অবশেষে ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে ইউ তাঁর বায়োলজিক্যাল ফাদারের পরিচয় নিশ্চিত হয় বলে খবর।

পুলিশ জানিয়েছে, ইউ-র বাবা একটি নির্মাণ সংস্থায় কাজ করতেন। সেখান থেকেই হারিয়ে যায় ইউ। তখন তাঁর বয়স ছিল তিন বছর। তার পর ইউ-কে খোঁজার অনেক চেষ্টা চালিয়েও ব্যর্থ হয় পুলিশ। তার পর বিষয়টি ধামাচাপাও পড়ে গিয়েছিল। কিন্তু ফেসঅ্যাপ ভাইরাল হওয়ার পরেই সেই অ্যাপের বিপুল ডেটাবেস খতিয়ে দেখে পুলিশ। তারপরই খোঁজ মেলে ওই ইউ-এর। এই ফেস অ্যাপ নিয়ে যখন গোটা বিশ্ব মাতামাতি করছে, তখন তা থেকেই নিজেদের পুরনো কেস সমাধানের চেষ্টা করতে থাকে চিনা পুলিশ। ১৮ বছর আগের মিসিং কেসটির কথা মনে পড়ে যায়। ফেস অ্যাপ বয়স বাড়িয়ে কেমন দেখতে হবে ইউজার, তা বলে দিচ্ছে। যদি এই অ্যাপের মাধ্যমে ওই শিশুর মুখটাকে বড় করে দেখানো যায় তাহলে কেমন হয়। যেমন ভাবা তেমনই কাজ। এরপর ওই বয়সী প্রায় ১০০ জন যুবকের সমস্ত ঠিকুজি কুষ্ঠি নিয়ে যাচাই করার পর ইউ-র হদিশ পায় পুলিশ। এই সাফল্যে খুশি ওই যুবকের দুই বাবা-ই