AIFF Audit Report: প্রকাশিত সর্বভারতীয় ফুটবলের অডিট রিপোর্ট, মিটিংয়েই খরচ ৯২ লক্ষ টাকা!
All India Football Federation (Photo Credit: X)

গত ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে আয় বাড়লেও আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে এআইএফএফ। ভারতীয় ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন (AIFF) ২০২২-২৩ অর্থবর্ষের অডিট রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। এআইএফএফ চলতি আর্থিক বছর শেষ হওয়ার এক বছরেরও বেশি সময় পরে ২০২২-২৩ সালের জন্য তাদের আর্থিক বিবৃতি প্রকাশ করেছে। ২০২২-২৩ ভারতীয় ফুটবলের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বছর ছিল, কারণ কোভিড-১৯ মহামারীর পরে প্রথমবারের মতো স্টেডিয়ামের ভিতরে ভক্তদের আসার অনুমতি মেলে এবং মহামারীর কারণে সাময়িক বিরতির পরে নিচের লিগের পাশাপাশি যুব কার্যক্রম আবার শুরু হয়। এই সময়ে, ভারত ফিফা অনূর্ধ্ব-১৭ মহিলা বিশ্বকাপেরও আয়োজন করে, যা এআইএফএফের বড় টুর্নামেন্ট আয়োজনের ক্ষমতা সম্পর্কে একটি শক্তিশালী প্রমাণ তুলে ধরে। এআইএফএফ-এর সদ্য প্রকাশিত আর্থিক বিবৃতি থেকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অনুসন্ধানগুলির মধ্যে একটি আয় এবং ব্যয়ের অ্যাকাউন্টে ঘাটতি দেখায়। ISL 2023-24 Play-Offs & Final Schedule: ঘোষিত আইএসএল ২০২৩-২৪ ফাইনাল ও প্লে অফের সূচি, ৪ মে ফাইনাল

যেখানে আয় প্রায় ১৩৭ কোটি টাকা সেখানে ব্যয় বেড়ে ১৫২ কোটি টাকা যার ফলে প্রায় ১৫ কোটি টাকার ঘাটতি হয়েছে, যেখানে ২০২১-২২ সালে ব্যয় ছিল ৬৩ কোটি। আকাশচুম্বী ব্যয়ের পিছনে প্রধান কারণ হল টুর্নামেন্ট শিবিরগুলিতে বর্ধিত ব্যয়, যার মধ্যে অনেকগুলি কোভিডের কারণে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল, তবে ২০২২-২৩ সালে আবার শুরু হয়। টুর্নামেন্টে ব্যয় ২০২১-২২ সালে প্রায় ৪২ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ২০২২-২৩ সালে ১২০ কোটি টাকা হয়েছে। মজার বিষয় হল, ২০২২-২৩ আর্থিকবর্ষে এআইএফএফ মিটিংয়ে ৯২,৩৩,৬৮৪ টাকা খরচ করেছে। সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন সেভিংস অ্যাকাউন্টে ১২ কোটি রয়েছে যেখানে ২০২১-২২ অর্থবর্ষ শেষে সেভিংস ছিল ২৮ কোটির বেশী। হাতে থাকা নগদও উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পেয়েছে এবং ৭৯ হাজারে নেমে এসেছে। অন্যদিকে ফিক্সড ডিপোজিট অ্যাকাউন্টে বেড়েছে প্রায় পাঁচ কোটি টাকা।