2019 Copa América: বিশ্বকাপ ক্রিকেটের মাঝেই চলবে মেসি বনাম নেইমার দ্বৈরথ
মেসি, নেইমারের লড়াই দেখা যাবে এবারের কোপা আমেরিকায়। (File Photo)

স্পোর্টস ডেস্ক: যাবতীয় জল্পনার অবসান। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে (2018 Russia world Cup) আর্জেন্টিনা (Argentina)-র ব্যর্থতার পর মনে করা হয়েছিল লিওনেল মেসি (Lionel Messi) আর কখনও দেশের জার্সিতে খেলবেন না। আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে মেসির অবসরের বিষয় নিয়ে প্রচারমাধ্যমে অনেক আলোচনাও হয়েছে। কিন্তু, না মেসি ফিরছেন দেশের জার্সিতে। ২০১৯ কোপা আমেরিকায় খেলতে দেখা যাবে মেসিকে। ২০১৭ কোপা-র ফাইনালে হারের পর হতাশায় আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন এলএম টেন (LM10)। পরে মেসি অবসর ভেঙে দেশের জার্সিতে বিশ্বকাপের মূলপর্বে দেশকে নিয়ে যান এবং FIFA World Cup 2018 দেশের জার্সিতে খেলতে নামেন।

আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি-র কাছে তুরুপের তাস হতে চলেছেন মেসি। অন্যদিকে, ব্রাজিলের কোচ তিতের তুরুপের তাস নেইমার (Neymar)। জুনে চুটিয়ে চলবে আইসিসি বিশ্বকাপ (ICC World Cup 2019)। তার মাঝেই তখন চলবে মেসি-নেইমার দ্বৈরথ। আর্জেন্টিনার কোপা দলে দলে চমক বলতে ইন্টার মিলান স্ট্রাইকার মাউরো ইকার্দি-কে রাখা হয়নি। তেমন ব্রাজিলের দলে নেই লুকাস মউরা ও ভিনিসিউস জুনিয়ররা। পাশাপাশি বাদ পড়েছেন লিভারপুলের ফ্যাবিনহো।

ব্রাজিলের কোপা স্কোয়াড

আলিসন, এদেরসন, কাসিয়ো (গোলরক্ষক), দানি আলভেস, ফ্রাগনের, ফিলিপে লুইস, আলেক্স সান্দ্রো, মিরান্দা, থিয়াগো সিলভা, মারকিনুস, এদের মিলিতাও (ডিফেন্ডার), কাসেমিরো, ফের্নান্দিনিয়ো, আর্থার, আলান, লুকাস পাকিতা, ফিলিপ কুতিনহো (মিডফিল্ডার), নেইমার, রিচার্লিসন, দাভিদ নেরেস, এভারতন, রবের্তো ফিরমিনো, গ্যাব্রিয়েল জেসুস (ফরোয়ার্ড)।

আর্জেন্টিনার কোপা স্কোয়াড

গোলকিপার: আন্দ্রাদা, আরমানি ও মার্চেসিন

ডিফেন্স: রেনজো সারাভিয়া, নিকোলাস ওটামেন্ডি, হুয়ান ফোয়েথ, জার্মান পেতসেয়া, রামিরো ফুয়েনেস মোরি, নিকোলাস তাগলিয়াফিকো ও মার্কাস আকুনা

মাঝমাঠ: রদ্রিগো দি পল, লিয়ান্দ্রো প্যারাদেস, রবার্তো পেরেইরা, জিওভানি লো চেলসো, অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া, গুইদো রদ্রিগেজ ও এজিকিয়েল প্যালাসিওস

ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি, সার্জিও এগুয়েরো, পাউলো দিবালা, মাতিয়াস সুয়ারেজ ও লওতারো মার্টিনেজ।

আগামী ১৪ জুন থেকে পেলে (Pele), রোমারিও (Romario) , নেইমার (Neymar)-দের দেশে হতে চলা দক্ষিণ আমেরিকার এক নম্বর টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকায় অংশ নিতে চলেছে ১২টি দেশ। ব্রাজিলের মোট ৫টি শহরে ৬টি কেন্দ্রে হবে টুর্নামেন্টের ম্যাচগুলি। ফাইনাল ৭ জুলাই, রিও ডি জেনিরও-তে। দক্ষিণ আমেরিকার ১০টি দেশের পাশাপাশি এবার কোপা আমেরিকায় খেলছে দুটি এশিয়ার দেশ- জাপান ও কাতার। জাপান এর আগে ১৯৯৯ কোপা আমেরিকায় অংশ নিয়েছিল। তবে ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপের আয়োজক কাতার এই প্রথম কোপায় অংশ নিচ্ছে। বিশ্বকাপের ব্যর্থতা ভুলে কাপ জিততে ঝাঁপাতে মরিয়া আয়োজক দেশ ব্রাজিল। অন্যদিকে, মেসি খেলবেন কি না সেই প্রশ্ন রেখেই বিশ্বকাপের ব্যর্থতা ভুলে নামবে আর্জেন্টিনা। গতবারের চ্যাম্পিয়ন চিলিও লড়াইয়ে থাকবে।

এক নজরে কোপা আমেরিকা ২০১৯--

কোন কোন দল খেলছে--

ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, চিলি, কলম্বিয়া, উরুগুয়ে, ইকুয়েডর, বলিভিয়া, ভেনেজুয়েলা, প্যারাগুয়ে, পেরু জাপান, কাতার

কোন গ্রুপে কারা--

১২টি দলকে তিনটি গ্রুপে ভাগ করে হবে এই টুর্নামেন্ট।

গ্রুপ এ--ব্রাজিল, বলিভিয়া, ভেনেজুয়েলা, পেরু

গ্রুপ বি--আর্জেন্টিনা, কলম্বিয়া, প্যারাগুয়ে, কাতার

গ্রুপ সি--উরুগুয়ে, ইকুয়েডর, চিলি, জাপান

টুর্নামেন্টের ফর্ম্যাট কেমন

তিনটি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স দল সরাসরি উঠবে কোয়ার্টার ফাইনালে। তার মানে তিনটি গ্কুপ থেকে ৬টি দল সরাসরি নক আউটে যাবে। তারপর কোয়ার্টার ফাইনালের বাকি দুটি দল ঠিক হবে তিনটি গ্রুপের তৃতীয় স্থানে দলগুলির পয়েন্টের ওপর।

গতবারের চ্যাম্পিয়ন

২০১৬ সালে শতবার্ষিকী কোপা আমেরিকায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল চিলি। ফাইনালে মেসির আর্জেন্টিনাকে টাইব্রেকারে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল চিলি।

কোপার ইতিহাস

১৯১৬ সালে আর্জেন্টিনায় প্রথমবার বসেছিল কোপা আমেরিকার আসর। কোপার ইতিহাসে সফলতম দেশ-উরুগুয়ে। উরুগুয়ে মোট ১৫বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল, আর্জেন্টিনা মোট ১৪বার খেতাব জেতে। সেখানে ব্রাজিল মাত্র ৮বার কোপা কাপ জেতে।

কোথায় দেখা যাবে খেলা

সোনি টেন ও সোনি সিক্স চ্যানেলে সরাসরি দেখানো হবে টুর্নামেন্টের সব ম্যাচ।