10 Deadliest Natural Disasters In 2020: পঙ্গপাল হানা, উত্তরাখণ্ডের দাবানল! আতঙ্কের ২০২০

২০২০ সালটা প্রায় শেষের পথে! শুধুমাত্র করোনাভাইরাস নয়। আরও বেশ কিছু ভয়ঙ্কর ঘটনা এই সালটিকে ইতিহাসের পাতায় লিখে রাখবে। একের পর এক প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে বিধ্বস্ত হয় গোটা বিশ্ব। অস্ট্রেলিয়া থেকে উত্তরাখণ্ড। দাবানলের আগুনে প্রশ্নের মুখে পড়ে বন্যপ্রাণীদের জীবন। তাদের বেঁচে থাকার লড়াই দেখে কেঁদে ওঠে গোটা বিশ্ব। বাংলার বুকে বছরের মাঝামাঝি সময়ে আছড়ে পড়ে আম্ফান ঘূর্ণিঝড়। যার ক্ষত এখনও সেরে ওঠেনি পুরোপুরি। এছাড়াও ভূমিকম্প, অগ্নুৎপাতের মত প্রাকৃতিক বিপর্যয় তো রয়েছেই। সবমিলিয়ে ২০২০ সালটি ছিল আতঙ্কের বছর। বছরের শেষে এসে একটিই কামনা! আগামী বছরটি যেন হয় শান্তির! একটা সুস্থ পৃথিবী দেখার অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে গোটা বিশ্ব। বিশ্বাস, এই অন্ধকার কাটিয়ে আলোর মুখ দেখবে এই বিশ্ব। ২০২১-র আগাম শুভেচ্ছা সকলকে।

অস্ট্রেলিয়ায় দাবানল

১ মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা দাবানলে পুড়ে ছাড়খাড় হয় অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস। ১৮ মিলিয়ন হেক্টর জমি পুড়ে ছাই, ৯ হাজারের বেশি বাড়ি আগুনে ধ্বংস, ৪০০-র বেশি মানুষের মৃত্যু হয় এবং প্রাণ বাঁচাতে পশুদের লড়াই চোখে জল এনেছিল গোটা বিশ্বের।

আমেরিকার দাবানল

ওরেগন, ওয়াশিংটন আর ক্যালিফর্নিয়া— আমেরিকার পশ্চিমাংশ ভয়াবহ দাবালনের কবলে পড়ে। ঘন কালো ধোঁয়া আর মানুষের হাহাকার ভেদ করে ছড়িয়ে পড়েছিল আগুন।

লরা হ্যারিকেন, আমেরিকা

২৭ অগাস্ট আমেরিকায় লুইসিনার মাটিতে আঘাত হানে হ্যারিকেন লরা। সাম্প্রতিক অতীতে এটিই ছিল আমেরিকার বুকে আছড়ে পড়া সবচেয়ে শক্তিশালী ঝড়।

ইন্দোনেশিয়ার হড়কা বান

হড়কা বানে একাধিক মানুষের মৃত্যু হয়, ঘরছাড়াও হয়েছেন বহুজন যার কোনও হিসেব নেই।

ফিলিপিনসের অগ্নুৎপাত

জানুয়ারির শুরুর দিকে পর্যটকদের আকর্ষণকেন্দ্রে তালে শুরু হয় অগ্নুৎপাত। হাজার হাজার মানুষকে এলাকা থেকে বের করে এনে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়া হয়, অগ্নুৎপাতের জেরে মৃত্যু হয় ৩০ জনের।

আম্ফান ঘূর্ণিঝড়

বাংলার বুকে আছড়ে পড়ে আম্ফান, ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে ছাড়খাড় হয়ে যায় কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জেলা।

ভূমিকম্প

রিখটার স্কেলে ৬ মাত্রার উপরে বিশ্বজুড়ে ৪৫টি ভয়ঙ্কর ভূমিকম্প ঘটেছে ২০২০-তে।

পঙ্গপালের ত্রাস

করোনা অতিমারীর মধ্যেই পঙ্গপালের হানায় বিধ্বস্ত হয় উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, পাঞ্জাব, রাজস্থান, ২৬ বছরে এটিই ছিল ভয়ঙ্কর আক্রমণ

পঙ্গপালের তাণ্ডবে ব্যপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয় চাষাবাদ।

উত্তরাখণ্ডে দাবানল

বিশ্বজুড়ে চলছে করোনাভাইরাস প্রতিরোধের লড়াই, ঘূর্ণিঝড় আম্ফান, তীব্র গরমের দাবদাহ উত্তর ও মধ্য ভারতে- এরমধ্যেই দাউদাউ আগুনে জ্বলে ওঠে উত্তরাখণ্ডের জঙ্গল। রাজ্যে ৪৫ টিরও বেশি বন আগুনের গ্রাসে চলে যায়, ৭১ হেক্টরেরও বেশি বনভূমি ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং প্রশ্নের মুখে বন্যপ্রাণী প্রজাতিদের প্রাণ।

অসমের বন্যা

ব্যপক বৃষ্টির জেরে অসমের নিম্নবর্তী অঞ্চলে বন্যা হয় অসমে, গ্রামের পর গ্রাম ধ্বংস হয়ে যায়। সাধারণ মানুষ থেকে পশুপাখি, সকলকেই উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় নিরাপদ আশ্রয়ে।