Rosogolla: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের আশীর্বাদে 'দীর্ঘজীবী' হতে চলেছে রসগোল্লা
রসগোল্লা(Photo Credit: Twitter)

কলকাতা, ১৮ নভেম্বর: বাংলার রসগোল্লা (Rosogolla) জিআই তকমা (GI Tag) পেয়েছে বছর দুয়েক আগে। ২০১৭ সালের ১৪ নভেম্বর জিআই তকমা লাভ করে বাংলার রসগোল্লা। তারপর থেকেই বাঙালির ক‍্যালেন্ডারে আরও এক নতুন উৎসব...রসগোল্লা দিবস (Rosogolla Divas)। এবার 'দীর্ঘজীবী' হওয়ার পথে বাংলার রসগোল্লা। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের (Jadavpur University) আশীর্বাদে আয়ু বাড়তে চলেছে বাংলার পেহেচানের। সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের (West Bengal Government) সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগ পরিকল্পনা নিয়েছে কীভাবে রসগোল্লাকে আরও বেশিদিন সংরক্ষণ করে রাখা যায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের সহকারী অধ্যক্ষ দেবু সাউ এই প্রসঙ্গে লেটেস্টলি বাংলাকে (LatestLY Bangla) জানান, গবেষণার কাজ এখনও চলছে, তাই পুরোটা প্রকাশ্যে আনা সম্ভব নয়। কিন্তু বলতে পারি, রসগোল্লা বানানোর সময় ছানা ঠাণ্ডা তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করে রাখা হয়। সেটা যদি স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রাখা হয় এবং সেই সঙ্গে চিনির (Sugar) পরিমাণ কমিয়ে দেওয়া যায় তাহলে আয়ু বেশি দিন বাড়বে রসগোল্লার। আরও পড়ুন: বাংলার রসগোল্লার মালিকানায় বসল ভাগ, ওড়িশা পেল জিআই ট্যাগ

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে রাজ্য সরকারের আয়োজনে শুরু হয়েছে ‘রসগোল্লা মেলা'। চলতি মাসের ১৪ তারিখ ‘মিষ্টি হাব'-এ রসগোল্লা দিবস পালিত হয়েছে। রাজ্যের পশুপালন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ (Swapan Debnath) এই প্রসঙ্গে এক বিবৃতি দিয়ে বলেছেন, একবার প্রযুক্তিটি সম্পূর্ণ হলেই রাজ্য সরকার স্বয়ংক্রিয় যন্ত্রের সাহায্যে রসগো‌ল্লা নির্মাণ করা শুরু করবে। সেখানে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞদের নির্দেশ মতো ওই রসগোল্লা তৈরি হবে। ‘মাদার ডেয়ারি' ব্র্যান্ডের অধীনে ওই সামগ্রী বিক্রি শুরু হবে।