How To Check Adulteration in Watermelon: লাল টুকটুকে তরমুজ দেখেই কিনে নিচ্ছেন, সাংঘাতিক ভুল! এক মিনিটের পরীক্ষায় ভেজাল তরমুজ চিনুন
How To Check Adulteration in Watermelon (Photo Credits: X)

ফল দ্রুত পাকাতে কিংবা তাতে রঙ চড়াতে বিভিন্ন রকম ক্যালশিয়াম ব্যবহার করা হয়। কৃত্রিম উপায়ে ফল পাকানোর জন্যে ব্যবহৃত ওই সম্পস্ত ক্যালশিয়াম আমাদের স্বাস্থ্যের জন্যে বেজায় ক্ষতিকর। গ্রীষ্মকালে আমের (Mango) মরসুম হলেও এই সময়ে ঘরে ঘরে তরমুজের (Watermelon) বিপুল চাহিদা থাকে। গরমে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা তরমুজ যেন প্রাণ জুড়িয়ে দেয়। কিন্তু বহু ক্ষেত্রে তরমুজের মধ্যেও মারাত্মক ক্ষতিকর এক রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়। যার নাম এরিথ্রোসিন (Erythrosine)। তরমুজে লাল রঙ আনতে এই রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়ে থাকে। দীর্ঘ সময় যাবত এই ক্ষতিকারক রাসায়নিক শরীরে গেলে স্বাস্থ্যের জন্যে ঝুঁকি তৈরি করতে পারে। না বুঝেই আমি, আপনি, আমরা প্রত্যেকেই এরিথ্রোসিন রাসায়নিক মিশ্রিত ভেজাল তরমুজ ফ্রিজ থেকে বের করে খেয়ে নিচ্ছি।

এখন নিশ্চয়ই ভাবছেন, তরমুজের (Watermelon) মধ্যে এরিথ্রোসিন রয়েছে তা কীভাবে বুঝবেন? ভেজাল তরমুজ (Adulteration in Watermelon) চেনার সহজ উপায় জানিয়েছে ফুড সেফটি অ্য়ান্ড স্ট্যান্ডার্ড অথারিটি অব ইন্ডিয়া বা FSSAI। ইউটিউবে একটি ভিডিয়ো মারফত কৃত্রিম উপায়ে লাল করা তরমুজ সহজেই চেনার উপায় বতলেছে FSSAI। যার জন্যে প্রয়োজন কেবল এক টুকরো তুলো। প্রথমে তরমুজটিকে মাঝখান থেকে কেটে দুভাগ করে নিতে হবে। এবার তুলোটি নিয়ে কাটা তরমুজের উপর হালকা ভাবে ঘষতে হবে। যদি দেখেন তুলোটিতে তরমুজের লালচে রঙ ধরেছে তাহলে বুঝতে হবে তাতে এরিথ্রোসিন রাসায়নিক মিশ্রিত রয়েছে। আর যদি তুলোয় তরমুজের লাল রঙ না ধরে তার মানে তাতে এরিথ্রোসিন ব্যবহার করা হয়নি।

FSSAI দেখানো পদ্ধতিতে ভেজাল তরমুজ চেনার জন্যে নেটিজেনরা সেই পরীক্ষা করেন বাড়িতে। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ফল হতাশাজনক বেরিয়েছে। দেখা গিয়েছে ব্যবহৃত তুলোটি লাল রঙ ধারন করেছে।

ভেজাল তরমুজ চিনুন...