Durga Puja 2019: মন খারাপের বিজয়া দশমীতে শুরু সিঁদুর খেলা,  অপেক্ষা আবার এক বছরের
ফাইল ছবি (Photo Credits: Puja Mandal)

সকাল থেকেই কলকাতা (Kolkata) সহ শহর ও শহরতলির বিভিন্ন মণ্ডপে (Pandal) শুরু হয়ে গিয়েছে সিঁদুর খেলা (Sindoor Khela)। সিঁদুর খেলা শুরু হয়ে গিয়েছে বনেদী বাড়ির পুজতেও। বাপের বাড়ি ছেড়ে ঘরের মেয়ে শ্বশুর বাড়ি ফিরে যাবে যে। দেখতে দেখতে শেষ দুর্গাপুজো (Durga Puja)। আজ বিজয়া দশমী (Bijoya Dashami)। উত্সবের আনন্দ মেখে আজ বিদায়ের বেলা উপস্থিত। মিষ্টি (Sweet) মুখে বিবাহিতা মেয়েদের স্পর্শে রাঙা হয়ে যাচ্ছে মা দুর্গার মুখ। চারিদিকে বিষাদের সুর। আবার ফের একটা বছরের অপেক্ষা।

বিজয়া দশমীর সঙ্গে সঙ্গেই শুরু হয়ে গিয়েছে আগামী বছরের পুজোর প্রতীক্ষা। আর এবারের অপেক্ষাটা অন্যান্য বছরের তুলনায় কিঞ্চিত লম্বা। ২০২০ সালে মহালয়ার ৩৫ দিন পর অনুষ্ঠিত হবে দুর্গাপুজো হবে। আগামী বছর আশ্বিনে (Aswin) নয়, পুজো হবে কার্তিক মাসে (Kartick)। শুধু তাই নয়, বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত এবং গুপ্ত প্রেস দুই পঞ্জিকা মতেই, আগামী বছর দুটো অমাবস্যা একই মাসে পড়ায় আশ্বিন মাস মল মাস। ফলে পুজো পিছিয়ে কার্তিক মাসে হবে। মহালয়া ১৭ সেপ্টেম্বর হলেও, বোধন অর্থাৎ ষষ্ঠী (Sasthi) পড়েছে তার ৩৫ দিন পর, ২২ অক্টোবর। অর্থাৎ অপেক্ষা প্রায় ৩৮০ দিনের। কিন্তু তাতে কী? যতই দেরী হোক না কেন, উমাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত বঙ্গবাসী (Bangali)। আগামী বছর পুজো কিছুটা দেরিতে হলেও সেই নিয়ে যেন কিছুটা খুশিই আমজনতা। অক্টোবরের (October) শেষ সপ্তাহে পুজো হলে বর্ষার ভ্রুকুটি এড়িয়ে ভাল পরিস্কার আবহাওয়া পাওয়া যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। আরও পড়ুন- Durga Puja 2019 Dashami: বিজয়া দশমী ও দশেরা উপলক্ষে সকল দেশবাসীকে অভিনন্দন নরেন্দ্র মোদি ও মমতা ব্যানার্জির

(Photo Credits: Puja Mandal)

(Photo Credits: Puja Mandal)

ফাইল ছবি

উল্লেখ্য, আগের চারটি দিনের মত দশমী অর্থাৎ আজও থাকছে বৃষ্টির (Rain) ভ্রুকুটি। সকাল থেকে আকাশ মেঘহীন থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে পারে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা। তবে, বিকালের পর থেকে আকাশ মোটামুটি পরিস্কারই থাকবে বলে হাওয়া অফিস সূত্রে খবর। নিয়মমাফিক সিঁদুর খেলা ও বরণ আজ। কিন্তু বেশিরভাগ মণ্ডপেই সিঁদুর খেলা আজ হলেও প্রতিমা নিরঞ্জনের (Visarjan) পালা আজ নয়। আরও বেশ কয়েক দিন প্রতিমা থাকে শহরে। শহরের বিভিন্ন পুজার মণ্ডপে। তাই এখনও যে শারদীয়ার আমেজ বজায় থাকবে তা বলাই বাহুল্য। দশমীর দিনেও তাই কলকাতায় বজায় থাকছে প্যান্ডেল হপিং (Pandal Hopping)।