Karnataka: বরখাস্তের সিদ্ধান্ত বহাল, তবে উপ নির্বাচনে লড়তে পারবেন কর্নাটকের ১৭ বিধায়ক; নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের
সুপ্রিম কোর্ট (Photo Credits: PTI)

নতুন দিল্লি, ১৩ নভেম্বর: কর্নাটকের (Karnataka) ১৭ বিধায়ককে স্পিকারের বরখাস্তের সিদ্ধান্ত বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court)৷ তবে বরখাস্ত হওয়া বিধায়ককরা উপনির্বাচনে লড়তে পারবেন বলে জানিয়েছে শীর্ষ আদালতের তিন সদস্যর বেঞ্চ৷ চলতি বছরের জুলাই মাসে কর্নাটকের ১৭ বিধায়কের সদস্যপদ বাতিল করেছিলেন তৎকালীন স্পিকার কে আর রমেশ (K R Ramesh)। সেই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ওই বিধায়করা সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন। সুপ্রিম কোর্ট বলেছে, "এটি সরকার ও বিরোধী দলের জন্য সমানভাবে বাধ্যতামূলক।" বিচারপতি এনভি রমনা (Justice NV Ramana) বলেন, "আবেদনকারীরা যেভাবে আদালতে এসেছিলেন আমরা তার প্রশংসা করি না।" বিচারপতি এনভি রমনা (Justice NV Ramana) ছাড়াও তিন সদস্যর বেঞ্চে রয়েছেন বিচারপতি সঞ্জীব খান্না ও কৃষ্ণ মুরারী।

গত জুলাই মাসে কংগ্রেস ও JDS থেকে ১৭ জন বিধায়ক পদত্যাগ করেন। ফলে কর্নাটকে এইচ ডি কুমারস্বামীর (H. D. Kumaraswamy) নেতত্বাধীন জোট সরকারের পতন হয়। তৎকালীন স্পিকার কে আর রমেশ দলত্যাগ বিরোধী আইনে ১৭ বিধায়কের সদস্যপদ বাতিল করে দেন। তাঁরা উপনির্বাচনে লড়তে পারবেন না বলেও জানিয়ে দেন স্পিকার৷ যার বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন বিধায়করা। সম্প্রতি নির্বাচন কমিশন কর্নাটকের ১৫টি বিধানসভা আসনে উপনির্বাচনের ঘোষণা করেন। এরপরই  বিধায়করা শীর্ষ আদালতে আবেদন করে রায় ঘোষণা পর্যন্ত ১৫টি আসনের জন্য বিধানসভা উপ নির্বাচন স্থগিত করার দাবি জানান। এজন্য নির্বাচন কমিশনকে যাতে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেয় তাও দাবি জানানো হয়। যদিও কমিশন জানিয়ে দেয় সূচি অনুযায়ী উপ নির্বাচন হবে। আরও পড়ুন: Delhi Air Pollution: ফের বিপদসীমায় রাজধানীর দূষণমাত্রা, তিনদিনের জন্য ফিরছে গাড়ির জোড়-বিজোড় স্কিম

৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে উপ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। ৯ ডিসেম্বর ভোট গণনা ও ফলাফল ঘোষণা করা হবে। রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক জানিয়েছেন, ১১ নভেম্বর থেকে আদর্শ আচরণবিধি (model code of conduct ) কার্যকর হয়েছে।