Priyanka Gandhi On Justice Muralidhar's Transfer: বিচারপতি মুরলীধরের রাতারাতি বদলি দুঃখজনক ও লজ্জার, টুইটে ক্ষোভ উগরে দিলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী
প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (Photo Credits: IANS)

নতুন দিল্লি, ২৭ ফেব্রুয়ারি: দিল্লিতে হিংসার ঘটনায় আহতদের সুচিকিৎসা দেওয়ার জন্য পুলিশকে দায়িত্ব নিতে বলেছিলেন। মধ্যরাতে নিজের বাড়িতেই শুনানি করেন দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধর। হিংসার ঘটনার জন্য প্রকারান্তরে দিল্লি পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তাঁকে বদলি করে দেওয়া হল পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে (Punjab and Haryana High Court)। এই ঘটনায় বেজায় রেগে গিয়েছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী তিনি বলেন, “দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধরকে রাতারাতি বদলি করার ঘটনাটি নিঃসন্দেহে দুঃখের ও লজ্জাজনক। সুষ্ঠু বিচারকে গলা টিপে মারতে চাইছে কেন্দ্র। বর্তমান অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি এসমুরীধরের রাতারাতি বদলি হয়ে যাওয়াতে খুব একটা অবকা হইনি। তবে এই ঘটনা দুঃখজনক ও লজ্জাজনক।”

তিনি আরও বলেন, “লক্ষ লক্ষ ভারতীয় স্থিতিশীল ও ন্যায় বিচারের উপরে আস্থা রেখেছে। সরকার সেই বিচার বিভাগের মুখবন্ধ করে দিয়ে মানুষের বিশ্বাসের ঘর ভাঙতে চলেছে।” বুধবার দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতির নামে বদলির অর্ডার আসে। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদে ও রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে শলাপরামর্শ করেই বিচারপতি মুরলীধরের বদলির বিষয়টি পাকা করা হয়। নোটিসে জানিয়ে দেওয়া হয়, এস মুরলীধর এখন থেকে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা কোর্টে বিচারকের দায়িত্ব নেবে। আরও পড়ুন-Subramanian Swamy: আম্বেদকর ও সাভারকরকে হিংসে করতেন জওহরলাল নেহরু, ফের বিতর্কিত মন্তব্য করলেন সুব্রহ্মনিয়ান স্বামী

নোটিসে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রপতি এস মুরলীধরকে হরিয়ানা হাইকোর্টের দায়িত্ব নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। জানা গিয়েছে দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধরের বদলি নিয়ে অনেকদিন ধরেই আলোচনা চলছে। গত ১২ ফেব্রুয়ারি এনিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে বৈঠকও হয়েছিল। সেখানেই ঠিক হয় এস মুরলীধর পাঞ্জাব ও হরিয়ানার দায়িত্ব পেতে চলেছেন।