IT Ministry Letter To Twitter CEO Jack Dorsey: লেহ-কে চিনে দেখানোয় টুইটারের সিইও জ্যাক ডরসিকে চিঠি কেন্দ্রের
জম্মু ও কাশ্মীরকে চিনের অংশ হিসেবে দেখাল টুইটার (Photo Credits: Nitin Gokhale and Bhavuk Pandita)

নতুন দিল্লি, ২২ অক্টোবর: ভারতের মানচিত্র ভুল দেখানোর জন্য ইলেক্ট্রনিক্স এবং তথ্য মন্ত্রকের সেক্রেটারি অজয় ​​সাহনী টুইটারের (Twitter) সিইও জ্যাক ডরসিকে (Jack Dorsey) চিঠি লিখেছেন। ভারতের মানচিত্রের ভুল উপস্থাপনের জন্য তিনি তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এতে উল্লেখ করা হয়েছে যে এই ধরনের প্রচেষ্টা টুইটারের কাছে কেবল অসন্তুষ্টিই এনেছে না বরং এর নিরপেক্ষতা, ন্যায্যতা নিয়েও প্রশ্ন তোলে।

টাইমলাইনে লেহকে (Leh) চিনের (China) অংশ হিসাবে দেখানো হয়। এরপর ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকেন নেটিজেনরা। রবিবার টুইটারে এই ভিডিয়োটি প্রকাশ পায়। সিনিয়র প্রতিরক্ষা সাংবাদিক নীতিন গোখলে টুইটরে লাইভ এসে দেখান যে লেহ-র অনুসন্ধান করতে টুইটার তাঁর অবস্থান দেখাতে শুরু করে জম্মু ও কাশ্মীর, চিন। নীতিন গোখলে আরও জানান, কোথাও ভুল হচ্ছে কি না তা বুঝতে বারবার অবস্থান রিফ্রেশ করেন এবং টুইটার তখনও জম্মু ও কাশ্মীর, চিন হিসাবে প্রদর্শিত হচ্ছিল। তিনি শীঘ্রই অন্যান্য টুইটার ব্যবহারকারীদেরও সেখানকার লোকেশন দেখতে বলেন। তাদেরও লোকেশন একই আসে অর্থাৎ জম্মু ও কাশ্মীর, চিন। সকলেই তাঁর স্ক্রিনশট শেয়ার করতে থাকেন।আরও পড়ুন: Twitter Statement on 'J&K in China' Controversy: লেহকে ঘিরে জিওট্যাগ ইস্যুতে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে টুইটার ইন্ডিয়ার, শীঘ্রই সমস্যার সমাধান করার আশ্বাস

সোমবার টুইটার ভারত জানিয়েছে, তারা এই সমস্যার সমাধানের কাজ করছে। এটিকে প্রযুক্তির ত্রুটিগত সমস্যা বলে টুইটার জানিয়েছে, তাদের কর্মীরা এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিচ্ছে। টুইটার ইন্ডিয়ার মুখপাত্র বলেছেন, ''আমরা রবিবার এই প্রযুক্তিগত সমস্যাটি সম্পর্কে সচেতনতার সঙ্গে সমাধানের চেষ্টা করছি এবং চারপাশের সংবেদনশীলতা বুঝতে পারছি এবং তা সম্মান করি। আমাদের টিম সংশ্লিষ্ট জিওট্যাগ ইশু নিয়ে তদন্ত ও তার সমাধানের জন্য দ্রুত কাজ করেছে।''

সূত্র অনুসারে, আজ চিঠিতে ইলেক্ট্রনিক্স এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের সচিব টুইটারকে ভারতীয় নাগরিকদের সংবেদনশীলতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বলেছেন এবং জোর দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা অবমাননার জন্য টুইটারের যে কোনও প্রচেষ্টা, যা মানচিত্রের দ্বারাও প্রতিফলিত হয়েছে, সম্পূর্ণরূপে অগ্রহণযোগ্য। ভারত সরকারের প্রতিনিধি তাঁর চিঠিতে বলেছেন যে এটি করা আইনত নয়। টুইটারকে কড়া ভাষায় সতর্ক করে সাহনী উল্লেখ করেছেন যে এই জাতীয় ঘটনা টুইটারের জন্য অসম্মানের এবং এর নিরপেক্ষতা ও ন্যায্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলে। সাহনী স্পষ্ট করে বলেছেন যে লেহ কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল লাদাখের সদর দফতর এবং লাদাখ ছাড়াও জম্মু ও কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ।