২৩০ দিনেও ৫০০০ কোটির ধার শোধ করতে পারেনি, এয়ার ইন্ডিয়াকে জ্বালানি সরবারহ বন্ধ করল তেল সংস্থা
ভারতকে আকাশপথ খুলে দিল পাকিস্তান। Representational Image (Photo credits: Instagram)

দিল্লি, ২৩ আগস্ট: এয়ার ইন্ডিয়ার তিনটি সরকারি তেল সংস্থার কাছে জ্বালানি নিয়েও দীর্ঘদিন ঋণ মেটায়নি। ৫০০ কোটি টাকা তেলের দাম বাকি পড়ে আছে। এবার এয়ার ইন্ডিয়াকে জ্বালানি সরবরাহ করবে না আইওসি, বিপিসিএল ও এইচপিসিএল। কোচি, পুনে, পাটনা, রাঁচি, মোহালি ও ভাইজাগ বিমানবন্দরে জ্বালানির মূল্য বাকি পড়েছে। তাই এই ৬ জায়গায় জ্বালানি সরবরাহ বন্ধ হল। তিন মাসের মধ্যে জ্বালানির টাকা পরিশোধ করার কথা ছিল এয়ার ইন্ডিয়ার। কিন্তু সেখানে ২৩০ দিন পেরিয়ে গেলেও প্রতিশ্রুতি রাখতে পারেনি এই বিমান সংস্থা।

২২ আগস্ট থেকেই দেশের সংশ্লিষ্ট ছয় বিমানবন্দরে এয়ার ইন্ডিয়ার জ্বালানি সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তার আগে গত ১৪ আগস্ট বৈঠক করে শেষবারের মতো হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়। বলা হয় বকেয়া টাকা না মেটালে ২২ তারিখ থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার ছটি বিমানবন্দরের বিমানে জ্বালানি সরবরাহ করা হবে না। তাই পূর্ব নির্ধারিত দিনেই বন্দ হয়ে গিয়েছে জ্বালানি সরবরাহ। তবে দিনের পর দিন যে আর্থিক সংকটে চলে যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট বিমান সংস্থা তা এদিনের জ্বালানি সরবরাহ বন্ধের ঘটনাই প্রমাণ করে দেয়। আরও পড়ুন-বিজয়া দশমী থেকেই বন্ধ কর সন্ত্রাস, জানিয়ে দিলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন

জানা গিয়েছে, টাকা পরিশোধের জন্য় সময় চেয়ে বেশ কয়েকবার অনুনয় বিনওও এয়ার ইন্জিয়ার তরফে তেল সংস্থাকে করা হয়েছিল। সেইমতো তিন মাসের পরেও দীর্ঘ সময় এই বিমান সংস্থাকে টাকা পরিশোধের জন্য ছাড় দেওয়া হয়। তারপরেও ৫০০০ কোটি টাকার পাহাড় প্রমাণ দেনা শোধ করতে পারেনি একেবারে জগদ্দল পাথরের ন্যায় বিমান সংস্থার কাঁধে সেই দেনা চেপে বসেছে। তবে এরপরেও ফের ঘুরে দাঁড়ানোর বার্তা দিতে দেরি করেনি এয়ার ইন্ডিয়া।