“যেখান থেকে এসেছেন, সেখানেই ফিরে যান”, মার্কিন কংগ্রেসে ফের বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য করে বিতর্কে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প
মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প(Photo Credit: getty images)

ওয়াশিংটন ডিসি, ২৯ জুলাই: মেস্কিকো সীমান্তে মার্কিন নিরাপত্তারক্ষীর বাধার মুখে চূড়ান্ত হয়রান শরণার্থীরা। এনিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে জোর বিতর্ক শুরু হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের (President Donald Trump) বর্ণবিদ্বেষের শিকার হলেন মার্কিন কংগ্রেসের অ্যাফ্রো মার্কিন সদস্য অ্যালাইজা কামিংস (Elijah Cummings)। অ্যালাইজা আসেন বাল্টিমোর থেকে। তাই তাঁকে শায়েস্তা করতে বাল্টিমোরের উদ্দেশেই কটূ কথা বললেন ট্রাম্প। এক টুইট বার্তায় তিনিন লিখেছেন, এই সদস্য যে জেলা থেকে এসেছেন, সেই বল্টিমোর ‘বিরক্তিকর, ইঁদুরভরা আবর্জনার স্তূপ’ (disgusting, rat and rodent infested) ছাড়া আর কিছুই নয়। ট্রাম্পের এহেন কটাক্ষের পরেই ক্ষোভে ফুটছেন বাল্টিমোরবাসীরা। আরও পড়ুন-পৃথিবীর মানচিত্র থেকে আফগানিস্তানকে মুছে দেব, হুমকি দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

শোনা যাচ্ছে, হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসে মেক্সিকো প্রশ্নে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন অ্যালাইজা কামিংস। এরপরেই বদলা নিতে ট্রাম্প বলেন, মার্কিন সীমান্তের তুলনায় ‘আরও খারাপ অবস্থা’ বল্টিমোরের এবং কৃষ্ণাঙ্গ-প্রধান এই জেলা খুবই ‘বিপজ্জনক।’ এই টুইট দেখে এমনিতে চুপচাপ প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা-ও মুখ খুলেছেন। তাঁর স্ত্রী মিশেল ওবামা এক টুইটে মনে করিয়ে দিয়েছেন। আমেরিকা আমার বা তোমার নয়, আমাদের। স্ত্রীর এই বার্তা রিটুইট করেছেন বারাক ওবামা। সম্প্রতি ট্রাম্প কংগ্রেসের চার ‘অ-শ্বেতাঙ্গ’ মহিলাকে বর্ণবিদ্বেষী আক্রমণ করার পরে সরব হয়েছেন ১৪৮ জন আফ্রো-মার্কিন নাগরিক। এঁদের প্রত্যেকেই ওবামার আমলে মার্কিন প্রশাসনে ছিলেন। এঁদেরই পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট। একটি মার্কিন দৈনিকে সম্পাদকীয় পাতায় ওই ১৪৮ জন কলম ধরেছেন। সেই লেখার লিঙ্ক টুইটারে শেয়ার করে ওবামা লিখেছেন, ‘‘আমার প্রশাসনে এই দলটি যে ভাবে কাজ করেছে, তা নিয়ে আমি বরাবরই গর্বিত। কিন্তু তার চেয়েও বড় কথা, এখনও আমেরিকার জন্য ওঁরা যে ভাবে লড়াই চালাচ্ছেন, সেটাও গর্বের কারণ।’’

ইতিমধ্যেই অ্যাফ্রো-মার্কিনিদের ওই গোটা টিমটাই ট্রাম্পের এহেন বক্তব্যের পরে সংবাদমাধ্যমে নিজেদের ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন। লিখেছেন, ‘আমরা আফ্রো-মার্কিন, আমরা দেশপ্রেমী, আমরা অলস ভাবে বসে থাকতে চাই না।’’ লেখার শেষে সই করেছেন ১৪৮ জনই। ওবামা প্রশাসনের সেই অফিসারেরা শপথ নিয়েছেন, যে কোনও মূল্যে ‘বর্ণবিদ্বেষ, লিঙ্গবৈষম্য, সমকাম-ভীতি এবং বিদেশি-ভীতি’-র বিরোধিতা করবেন। জানা গিয়েছে, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কংগ্রেসের ওই চার সদস্যকে বলেছিলেন, যেখান থেকে এসেছেন, সেখানেই ফিরে যান। তাঁর নিশানা ছিলেন আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিয়ো কোর্তেজ, ইলান ওমর, রশিদা তালিব এবং আইয়ানা প্রেসলি। ট্রাম্পের মন্তব্য নিয়ে বিস্তর বিতর্ক হলেও প্রেসিডেন্ট স্বীকারই করেননি যে, তিনি বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য করেছেন।