Tokyo Olympics 2020: উদ্বোধনের অপেক্ষায় থাকা টোকিও গেমসে করোনার হানা অব্যাহত, গেমস ভিলেজ বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা

টোকিও, ১৮ জুলাই: শুক্রবার, ২৩ জুলাই টোকিওতে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অলিম্পিকের (Tokyo Olympics 2020)। তার আগে করোনা যেন টার্গেট হিসেবে বেছে নিচ্ছে টোকিওর গেমস ভিলেজকেই। গতকাল গেমস ভিলজে প্রথম করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা জানানোর পর আজ, রবিবার গেমস ভিলেজে থাকা আরও দুই ক্রীড়াবিদের করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এল। এই দুই ক্রীড়াবদিকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে গিয়ে কোয়ারিন্টনে রাখা হয়েছে। কোভিডে আক্রান্ত এই দুই খেলোয়াড়ের নাম জানানো না হলেও এটা বলা হয়েছে, তারা একই দেশের একই খেলার সঙ্গে জড়িত।

গেমস ভিলেজে দু জনে একই সঙ্গে থাকতেন। গতকাল গেমস ভিলেজে প্রথম করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছিল। এবার দক্ষিণ কোরিয়ার টেবিল টেনিস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তথা প্রাক্তন অলিম্পিক জয়ী রিউ সিওং মিন। অলিম্পিকের জন্য নারিতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছতেই তাঁর করোনার রিপোর্ট পজিটিভ ধরা পড়ে।

সব মিলিয়ে করোনা চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে টোকিও অলিম্পিকের আয়োজকদের। একেই করোনার কারণে লকডাউনে থাকা টোকিওতে অলিম্পিক আয়োজন নিয়ে জোর বিরোধ চলছে। দর্শকশূন্য অলিম্পিকে যাওয়া আয়োজকরা অবশ্য আশাবাদী গেমস সফলতার সঙ্গে আয়োজন হবে। গেমস ভিলেজে ইতিমধ্যেই ১৩০টি দেশের ক্রীড়াবিদরা এসে পড়েছেন। এমন সময় ভিলেজের আরও অনেকের করোনা ধরা পড়লে, ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকছে। আশার কথাই একটাই, ভিলেজের বেশিরভাগেরই টিকার সম্পূর্ণ ডোজ নেওয়া আছে।

গত বছর করোনার কারণে অলিম্পিক আয়োজন সম্ভব হয়নি। এক বছর পর ২৩ জুলাই, ২০২১-এ শুরু হতে চলেছে টোকিও অলিম্পিক। এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে জাপানে দু বার গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক আয়োজন হতে চলেছে। ১৯৬৪-র পর ২০২০। এবার দর্শকশূন্য হলে কী হবে ধারেভারে সবচেয়ে বড় হতে চলেছে টোকিও অলিম্পিক। ৩৩টি খেলার ৩৩৯টি বিভাগে খেলা হবে। টোকিও-তে অলিম্পিক আয়োজনে যত অর্থ খরচ হচ্ছে তা আগের কোনও অলিম্পিকে হয়নি। করোনাকে হারিয়ে শেষ অবধি কতটা সুষ্ঠও সফলভাবে হতে পারে টোকিও অলিম্পিক সেটাই এখন দেখার।