Narendra Modi On Vaccine Approval: 'স্বাস্থ্যকর ও কোভিডমুক্ত দেশের পথ সুগম করবে', ভ্যাকসিন অনুমোদন পেতেই টুইট নরেন্দ্র মোদির
নরেন্দ্র মোদি. (Photo Credit: PBNS)

নতুন দিল্লি, ৩ জানুয়ারি: কোভিশিল্ডি (Covishield) ও কোভ্যাক্সিন (Covaxin) ভ্যাকসিন ব্যবহারে অনুমোদন দিল ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া (DCGI)। আজ বেলা ১১টায় সাংবাদিক বৈঠক করে এই ঘোষণা করে তারা। ড্রাগ কন্ট্রোলার ভিজি সোমানি বলেছেন, উভয় সংস্থা তাদের ট্রায়াল পরিচালনার জন্য ডেটা জমা দিয়েছে এবং উভয়ই সীমাবদ্ধ ব্যবহারের জন্য অনুমতি পেয়েছে। আজকের ঘোষণার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi) বলেছে, একটি উৎসাহী লড়াইকে শক্তিশালী করার একটি সিদ্ধান্তমূলক মোড়।

টুইটারে মোদি বলেন, "ডিসিজিআই সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া এবং ভারত বায়োটেকের ভ্যাকসিনে অনুমোদন দিয়েছে। এই অনুমোদন স্বাস্থ্যকর ও কোভিডমুক্ত দেশের পথকে সুগম করবে। অভিনন্দন ভারত। আমাদের পরিশ্রমী বিজ্ঞানী ও উদ্ভাবকদের অভিনন্দন। মোদি লেখেন, এটি প্রতিটি ভারতীয়কে গর্বিত করে তুলবে যে জরুরিভাবে ব্যবহারের অনুমোদন দেওয়া দুটি ভ্যাকসিন ভারতে তৈরি করা হয়েছে! এটি আমাদের বৈজ্ঞানিকদের একটি আত্ননির্ভর ভারত স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করার উৎসাহ দেখায়, যার মূলে রয়েছে যত্ন ও মমতা। চিকিৎসক, চিকিৎসা কর্মী, বিজ্ঞানী, পুলিশকর্মী, স্যানিটেশন কর্মী এবং সমস্ত করোনার যোদ্ধাদের কাছে অসামান্য কাজের জন্য আমাদের কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি এই প্রতিকূল পরিস্থিতিতে। আমরা অনেক জীবন বাঁচানোর জন্য তাঁদের প্রতি চির কৃতজ্ঞ থাকব।

" আরও পড়ুন: Covishield ও Covaxin ব্যবহারে অনুমোদন দিল ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া

সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান আদর পুনাওয়ালা টুইটারে লেখেন, সবাইকে শুভ নববর্ষের শুভেচ্ছা! যে সব ঝুঁকি সেরাম ইনস্টিটিউট ভ্যাকসিন স্টকপ্লাইং দিয়ে নিয়েছে, অবশেষে তা শেষ হল। কোভিশিল্ড, ভারতের প্রথম COVID-19 ভ্যাকসিন অনুমোদিত, নিরাপদ, কার্যকর এবং আগামী সপ্তাহে রোল আউট করার জন্য প্রস্তুত।"

শুক্রবার অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়-অ্যাস্ট্রাজনেকার তৈরি ভ্যাকসিন কোভিশিল্ড ব্যবহারে অনুমোদন দিতে সুপারিশ করে এই প্যানেল। গতকাল ভারত বায়েটেকের তৈরি ভ্যাকসিন কোভ্যাক্সিন নিয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে বৈঠকে বসে তারা। বৈঠকের পর কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, সিডিএসসিও জরুরি পরিস্থিতিতে জনস্বার্থে সীমাবদ্ধ ব্যবহারের জন্য প্রচুর পরিমাণে সতর্কতা হিসাবে ভারত বায়োটেককে অনুমতি দেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছে। তৃতীয় ট্রায়ালের ছাড়পত্র পেয়েছে ক্যাডিলা হেলথ কেয়ারের জাইকোভ ডি ভ্যাকসিনও।