বৃহস্পতিবার থেকে কাশ্মীরে যাওয়ার অনুমতি মিলবে পর্যটকদের; স্বাভাবিক হওয়ার পথে পরিস্থিতি
ফাইল ছবি

শ্রীনগর, ৮ অক্টোবর: অবশেষে মুশকিল আসান। আর মাত্র একটা দিন। তারপরেই ভূস্বর্গের মাটিতে পরিভ্রমণে যেতে পারবেন পর্যটকরা। কাশ্মীরে (Jammu Kashmir) পর্যটক (Tourist) প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হল প্রশাসনের (administration) তরফে। সোমবার রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক (Satyapal Malik) প্রশাসনিক স্তরে একটি জরুরি বৈঠক করে উপত্যকার নিরাপত্তা পরিস্থিতি (Security) খতিয়ে দেখেন। তারপরেই ২ মাস আগে জারি হওয়া নিষেধাজ্ঞা তুলে নেন রাজ্যপাল। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কাশ্মীরের চিফ সেক্রেটারি এবং বিভিন্ন দপ্তরের উপদেষ্টারা। জম্মু কাশ্মীর প্রশাসনের তরফে একটি বিবৃতিতে জানান হয়েছে, আগামী ১০ অক্টোবর অর্থাৎ বৃহস্পতিবার থেকেই চাইলে কাশ্মীরে যেতে পারবেন পর্যটকরা।

আগস্টের গোড়া থেকেই ভূস্বর্গে পর্যটন (Tourism) কার্যত থমকে ছিল। জুলাইয়ের শেষের দিক থেকেই কাশ্মীরে প্রচুর সেনা মোতায়েন করে ভারত সরকার (India Government)। উপত্যকা জুড়ে জারি করা হয় কারফিউও। কাশ্মীরে থাকা সব পর্যটককে দ্রুত রাজ্য ছাড়ার নির্দেশও দেওয়া হয়। গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে দেন রাষ্ট্রপতি (President)। জম্মু ও কাশ্মীরকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করে দেওয়া হয়। একটা অংশ জম্মু ও কাশ্মীর এবং অপর অংশ লাদাখ (ladakh)। কেন্দ্রের সেই সিদ্ধান্তের পর থেকেই বাইরে থেকে কারও যাওয়া তো দূরের কথা, কাশ্মীরের অন্দরেই যাতায়াত নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়। উপত্যকায় রীতিমতো বনধের পরিস্থিতি তৈরি হয় । অমরনাথ (Amarnath) যাত্রীদের মাঝপথ থেকেই ফিরিয়ে দেওয়া হয়। আরও পড়ুন- ভূস্বর্গে বজ্র আটুনি: বড় অশান্তির আশঙ্কায় জানেন কতজন সেনাকে জম্মু-কাশ্মীর পাঠানো হচ্ছে! দেশজুড়ে জারি সতর্কতা

কাশ্মীরের আয়ের অনেকটাই নির্ভর করে পর্যটনের উপর। বছরের প্রথম ৬ মাসেই প্রায় ৫ লক্ষ পর্যটক যান উপত্যকায়। উপত্যকাবাসী পর্যটন শিল্প থেকেই জীবিকা নির্বাহ করেন। পর্যটন বন্ধ হয়ে যাওয়াই তাঁরা বেশ সমস্যার মুখে পড়েছিলেন। কিন্তু, এবার তা স্বাভাবিক হওয়ার ইঙ্গিত দিলেন রাজ্যপাল।

(সংবাদ প্রতিদিনে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী)