PM Modi Tweets as Anti-CAB Protests Flare Up Across Assam: ‘ আপনাদের কোনও অধিকার কেউ কেড়ে নেবে না’, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরোধিতায় উত্তপ্ত অসমকে আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Photo Credits: ANI)

নতুন দিল্লি, ১২ ডিসেম্বর: লোকসভা রাজ্যসভায় একে একে পাস হয়ে গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। সমগ্র উত্তর-পূর্ব ভারত কিন্তু এই বিল মেনে নিতে একেবারে নারাজ। দিন যত গড়াচ্ছে ততই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে অসম (Assam) ত্রিপুরা। সেই বিক্ষোভ প্রশমন করতে এবার টুইটারে বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি লিখলেন, “৬ ধারা অনুযায়ী অসমবাসীর রাজনৈতিক, ভাষা, সংস্কৃতি ও ভূমির অধিকার রক্ষায় সাংবিধানির যে রক্ষাকবচ রয়েছে, তা রক্ষায় সম্পূর্ণরূপে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ কেন্দ্রীয় সরকার ও আমি। অসমিয়াদের অধিকার কেড়ে নেওয়া হবে না।”

ক্ষুব্ধ অসমিয়াদের আশ্বাস দিয়ে প্রধানমন্ত্রী (PM Modi) আরও বলেন, “অসমে আমার ভাই ও বোনেদের আশ্বাস দিয়ে জানাতে চাই যে, CAB পাশ হওয়ায় তাঁদের চিন্তার কোনও কারণ নেই। কেউ আপনাদের অধিকার, অনন্য পরিচয় ও সুন্দর সংস্কৃতিকে কেড়ে নেবে না। সেগুলি চলতেই থাকবে এবং আরও ফুলে ফেঁপে উঠবে।” এদিকে গতকাল সারা দিনভর দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল করে টায়ার জ্বালিয়ে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করে নাগরিক্তব সংশোধনী বিলের বিরোধিতা করেছে অসমের বিভিন্ন সংগঠন। উপায় না দেখে ফের কার্ফিউর মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। আগামী বেশ কয়েকদিনের জন্য ইন্টারনেটও বন্ধ থাকবে। গতকাল ডিব্রুগড়ে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়ালের বাড়িতে চলেছে পাথ বৃষ্টি। ছাবুয়া রেলস্টেশন দ্বালিয়ে দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। ভোর তিনটেতেও গুয়াহাটির রাজপথে কারফিউ অগ্রাহ্য করে বিক্ষোভ অব্যাহাত ছিল। শেষপর্যন্ত বিক্ষোভকারীদের হটাতে কাকভোরে গুয়াহাটির রাজপথে ফ্ল্যাগ মার্চ করল সেনাবাহিনীর দুটি দল। আরও পড়ুন-Guwahati: বিক্ষোভকারীদের হঠাতে বৃহস্পতিবার কাকভোরে গুয়াহাটির রাজপথে সেনার ফ্ল্যাগ মার্চ, বাড়ল কারফিউ, অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ ইন্টারনেট

অন্যদিকে পরিস্থিতি মোকাবিলায় ইতোমধ্যে অসমের ৪ জেলায় সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এর মধ্যে দু-কলাম জওয়ান মোতায়েন করা হয়েছে গুয়াহাটিতে। এ ছাড়া জোরহাট শহর ও তিনসুকিয়া এবং ডিব্রুগড় জেলায় সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। শান্তি ফিরিয়ে আনতে জওয়ানরা ফ্ল্যাগমার্চ শুরু করেছেন। গুয়াহাটি এবং ডিব্রুগড়ে ইতোমধ্যে জারি হয়েছে ১৪৪ ধারা। যে কোনও ধরনের জমায়েত, মিটিং, মিছিল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সেইসঙ্গে ১০ জেলায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে।