নরেন্দ্র মোদি সরকারের নতুন মোটর ভেহিক্যালস আইন চালু হচ্ছে না রাজ্যে, বিধানসভায় জানালেন শুভেন্দু অধিকারী
কলকাতার রাস্তা। (Image Credits: Flickr)

নয়া দিল্লি, ২৭ অগাস্ট: Motor Vehicles (Amendment) Bill-আগেই জল্পনা ছিল। আজ বিধানসভায় দাঁড়িয়ে সেই কথাটাই ঘোষণা করলেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। নতুন মোটর ভেহিক্যালস আইনের একাংশ নিয়ে চরম আপত্তি থাকায় রাজ্যে চালু হবে না এই নিয়ম।  মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee) মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য শুভেন্দু বিধানসভায় দাঁড়িয়ে সাফ জানিয়ে দিলেন, রাজ্যে চালু হচ্ছে না নতুন মোটর ভেহিক্যালস আইন। কেন্দ্রের নতুন মোটর ভেহিক্যালস আইন নিয়ে অসন্তোষের কথা আগেই কেন্দ্রকে জানিয়েছিল রাজ্য সরকার (West Bengal Government)। আগামী পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে কেন্দ্রের নয়া এই আইন গোটা দেশজুড়ে চালু হলেও, রাজ্যে শুরু হবে না।

নতুন মোটর ভেহিক্য়ালস আইনে জরিমানার পরিমান এক ধাক্কায় অনেকটাই বাড়ানো হয়েছে। মোটা জরিমানায় মানুষের অসুবিধা হতে পারে বলে এর বিরোধিতার রাস্তায় হাঁটছে রাজ্য। চলতি বছর ৩১ জুলাই সংসদে পাশ হয় মোটর ভেহিক্যালস সংশোধনী বিল,২০১৯। আরও পড়ুন-বিনা টিকিটের যাত্রীরাই লক্ষ্মী, জরিমানা থেকে ৩ বছরে ১৩০০ কোটি টাকা আয় রেলের

একাধিক সংশোধনী আনা হয় পুরনো আইনে। এই বিল পাস হওয়ার ফলে বদলে যাচ্ছে ট্রাফিক আইন সংক্রান্ত একাধিক নিয়ম । সাধারণ ট্রাফিক আইন লঙ্ঘনে আগে ১০০ টাকা জরিমামা দিতে হত, নয়া আইনে দিতে হবে ৫০০ টাকা । বিনা হেলমেটে বাইক/স্কুটার চালালে ১০০০ টাকা জরিমনা বা ৩ মাসের জন্য লাইসেন্স বাতিল হবে । নির্ধারিত গতির চেয়ে বেশি জোরে গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে আগে জরিমানা দিতে হত ৪০০ টাকা, নতুন আইনে সেই অঙ্কটা ১০০০ টাকা। মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে জরিমানার অঙ্ক ২০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১০,০০০ টাকা করা হয়। নয়া আইনে জরিমানার পরিমান ৫ থেকে ২০ গুণ বাড়ছে। লাইসেন্স নীতি না মানলে সর্বোচ্চ জরিমানা এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত। একই সঙ্গে হতে পারে তিন বছরের কারাবাস।