Covid-19: সনিয়ার ডাকে শুক্রবার বৈঠকে ১৫ বিরোধী দল, থাকবেন মমতা ব্যানার্জিও
Mamata Banerjee. Photo Source: ANI/Twitter

কলকাতা, ১৯ মে:  ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বিরোধী দলগুলি একজোট হওয়ার চেষ্টা চালিয়েছিল। কিন্তু গেরুয়া ঝড়ে সেই জোট তৈরির আগেই পুরোপুরি ভেঙে পড়ে। লকডাউনের জেরে কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন পরিযায়ী শ্রমিকেরা। দেশের নানা প্রান্ত থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের (Migrant Labour) হেঁটে বাড়ি ফেরার সেই ভয়ঙ্কর ছবি প্রকাশ্যে এসেছে। আগামী শুক্রবার করোনা পরিস্থিতি, পরিযায়ী শ্রমিকদের দূরাবস্থা এবং শ্রম আইনের পরিবর্তন নিয়ে কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধির (Sonia Gandhi) ডাকে ফের একবার ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে একজোট হতে চলেছেন বিরোধী দল। বৈঠকে হাজির থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও (Mamata Banerjee)।  আরও পড়ুন: Priyanka Gandhi Vs Yogi Adityanath: 'পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য বাসের নামে অটো, ট্র্যাক্টর পাঠাচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী', দাবি উত্তরপ্রদেশ সরকারের 

১৫ টি বিরোধী দল এই বৈঠকে অংশগ্রহণ করতে চলেছে। লকডাউনের জেরে কঠিন সমস্যার সম্মুখীন পরিযায়ী শ্রমিকেরা। পকেটে নেই টাকা, কাজ বন্ধ। মাইলের পর মাইল রাস্তার ধার ধরে হেঁটে চলেছেন তাঁরা। কবে বাড়ি ফিরতে পারবেন তাঁরা? এই প্রশ্নের উত্তর নেই কারওর কাছে। কিন্তু তাঁরা হেঁটে চলেছেন। দেশের নানা প্রান্ত থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের পথ দুর্ঘটনার খবরও প্রকাশ্যে আসছে। এই কঠিন মুহূর্তে দাঁড়িয়ে সমস্ত সমস্যার সমাধান করে কীভাবে তাঁদের বাড়িতে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা যায়, সেই নিয়েই আপাতত বৈঠক করবে বিরোধী দলগুলি। সনিয়া গান্ধির ডাকে সাড়া দিয়েই এই বৈঠকে যোগ দেবেন তিনি। মঙ্গলবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে একথা নিজের মুখেই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর (Priyanka Gandhi) বাস পাঠানোকে কেন্দ্র করে উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেস-বিজেপি চাপানউতোর তুঙ্গে। রাজ্যের মন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থনাথ সিং বলছেন, “আমরা প্রাথমিক তদন্ত করে দেখেছি। যে বাসের তালিকা দেওয়া হয়েছে তার মধ্যে সব বাস নয়। এর মধ্যে বহু টু-হুইলার, অটো, ট্রাক্টর, ছোট গাড়ি এবং অ্যাম্বুল্যান্স আছে। এবার সনিয়া গান্ধীকে উত্তর দিতে হবে, কেন তাঁরা এমন প্রতারণা করছেন”

গতকাল অর্থাৎ সোমবার উত্তরপ্রদেশ থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে ৩টি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনের (Shramik Special Train) বন্দোবস্ত করে সরকার। সেই ট্রেনে ওঠার জন্য নাম লেখাতে ভিড়ে একাকার হয়ে পড়ে উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদের রামলীলা ময়দান ( Ramlila Ground)। উত্তরপ্রদেশের নানা প্রান্ত থেকে তাঁরা ছুটে আসেন নাম লেখাতে।