Presidential Elections: তৃণমূল ছেড়ে বিরোধী জোটের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী যশবন্ত সিনহা, ঘোষণা জয়রাম রমেশের
Yashwant Sinha (Photo Credits: PTI)

নয়াদিল্লি, ২১ জুলাই: আজ, মঙ্গলবার সকালে যশবন্ত সিনহা-র তৃণমূল ছাড়ার টুইটের পরই বোঝা যাচ্ছিল বিষয়টা। সেটাই দুপুরে পরিষ্কার হল। মঙ্গলবার দুপুরে বিরোধী দলগুলির জোটের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসেবে যশবন্ত সিনহা-র নাম ঘোষণা করলেন কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ। তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও টুইট করে জানালেন, বিরোধী জোটের রাষঅট্রপতি পদপ্রার্থী হচ্ছেন যশবন্ত সিনহা। রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী বাছথে  বিরোধীদের এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে, এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার, তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহ দেশের ১৭টি দলের নেতারা। আগামী ২৭ জুন, সকাল সাড়ে ১১টায় বিরোধী দলের নেতারা একজোট হয়ে যাবেন যশবন্ত সিনহা-র রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়ন জমা দিতে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুরোধেই বিজেপি বিরোধী দেশের ১৭টি দল একজোট হয়ে রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী দিতে চেয়েছিল। শেষ অবধি মমতার দলের প্রার্থীই রাষ্ট্রপতি ভোটে বিজেপি-র বিরুদ্ধে লড়তে চলেছে। এর আগে শরদ পাওয়ার, ফারুক আবদুল্লা, গোপালকৃষ্ণ গান্ধী-রা বিরোধীদের হয়ে রাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচনে দাঁড়াতে চাননি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুরোধে শেষ অবধি রীতি মেনে তৃণমূল ছেড়ে আগামী মাসে হতে চলা রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে লড়বেন যশবন্ত সিনহা। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী এবং বিদেশমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলেছেন তিনি।আগামী ১৮ জুলাই হতে চলেছে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন। আরও পড়ুন: শিবসেনার মন্ত্রীর বিরোধিতায় মহারাষ্ট্রের সরকার গেল গেল রব

যে যশবন্ত সিনহা ছিলেন অটলবিহারী বাজপেয়ী মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ-র সঙ্গে দুরত্ব বাড়িয়ে ২০১৮ সালে বিজেপি ছাড়েন যশবন্ত। এরপর ২০২১ সালে তৃণমূলে যোগ দিয়ে সহ সভাপতি হয়েছিলেন যশবন্ত। কিন্তু রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে দাঁড়াতে হলে সক্রিয় রাজনীতিতে যোগ রাখা যায় না বলেই, আজ মমতাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বৃহত্তর দায়িত্ব নিতে হবে বলে তৃণমূল ছাড়ার ঘোষণা করেন যশবন্ত।

দেখুন টুইট

বিরোধীরা রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী ঠিক করে ফেললেও, বিজেপি এখনও এই নিয়ে পুরো চুপ। ২৮ জুনের মধ্যে রাষ্ট্রপতি পদের জন্য প্রার্থী ঠিক করে ফেলতে হবে। শোনা যাচ্ছে শেষ মুহূর্তে বড় চমক দিয়ে রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী দাঁড় করাবে এনডিএ। এবারের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ প্রার্থীর জয় নিয়ে সন্দেহ নেই। তবু ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনের মহড়া হিসেবে রাষ্ট্রপতি পদে জোট গড়ে প্রার্থী দিবল বিরোধীরা। যদিও মমতাদের জোটে থাকল না কেজরিওয়ালের আপ, মায়াবতীর বিএসপি, কেসিআর-এর টিআরএস, নবীন পট্টনায়েকের বিজেডি-র মত অবিজেপি দলগুলি। গতবার, ২০১৮ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে মীরা কুমারীকে হারিয়ে রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন রামনাথ কোবিন্দের।