সমস্যা তৈরি হলে প্রয়োজনে কাশ্মীরে যাবেন, কেন বললেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ?
প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ (Photo Credit: PTI)

দিল্লি, ১৬ সেপ্টেম্বর:  জম্মু ও কাশ্মীরের হাইকোর্টে বিচার চাইতে যেতে পারছেন না উপত্যকার সাধারণ বাসিন্দারা। এই অভিযোগ সত্যি হলে বিষয়টির একটা বিহিত করতে সেখানে যেতে প্রস্তুত দেশের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। উপত্যকার শিশু ও কিশোর কিশোরীরা বেশকিছু সমস্যার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। উপত্যকার বিভিন্ন জায়গায় যেতে বাধার সম্মুখীনতায় তারা সমস্যায় পড়েছে। এজন্য আদালত থাকলেও সেখানে যাওয়া যাচ্ছে না। এই সমস্যা সমাধানে সুপ্রিম কোর্টের কাছে আবেদন করেছিলেন সমাজকর্মী এনাক্ষী গাঙ্গুলি (Enakshi Ganguly)। তাঁর আবেদনের ভিত্তিতেই একথা বলেন বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। সমাধানও বাতলে দেন।

এদিন প্রধান বিচারপতি বলেন, “কেন জম্মু ও কাশ্মীর হাইকোর্টে (Jammu and Kashmir High Court) যেতে সমস্যা হচ্ছে? কেউ কি এই মুহূর্তে হাইকোর্টে যাচ্ছেন? যদি সত্যি সত্যি কোনও সমস্যা থাকে তাহলে আমরা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির প্রতিক্রিয়া জানতে চাই। প্রয়োজনে আমি নিজে জম্মু ও কাশ্মীরের হাইকোর্টে যাব এবং প্রধান বিচারপতির সঙ্গে কথা বলব। যদি সত্যি সত্যি সেখানকার বাসিন্দাদের হাইকোর্টে যেতে সমস্যা হয় তাহলে আমাদরই কিছু করতে হবে।” উপত্যকায় এখন সরকারের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন আইনজীবী কেকে বেনুগোপাল (Solicitor General KK Venugopal)। তিনি বলেন, জম্মু ও কাশ্মীরের সমস্ত কটি কোর্টে এখন স্বাভাবিক নিয়মে কাজ শুরু হয়েছে। এর মধ্যে লোক আদালতও পড়ে। সেখানেও কাজকর্ম চলছে। সুপ্রিম কোর্টে সরকারকে বলেছে, যত শিগগির সম্ভব উপত্যকায় স্থিরতা ও স্বাভাবিকতা ফিরিয়ে আনতে হবে। আরও পড়ুন-শীর্ষ আদালতের রায়, অবশেষে কাশ্মীরের মাটিতে পা রাখতে পারবেন গুলাম নবি আজাদ

উল্লেখ্য, সুপ্রিম কোর্টে আজ প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ (CJI Ranjan Gogoi), বিচারপতি এস এ বোবদে (justices SA Bobde) ও বিচারপতি এস এ নাজিরের (SA Nazeer) ডিভিশন বেঞ্চে কাশ্মীর উপত্যকার নিষেধাজ্ঞা নিয়ে করা একটি আবেদনের শুনানি ছিল। শুনানিতে বিচারপতি বোবদে বলেন, “হাইকোর্ট কাজ বন্ধ আছে কেন? যদি এই মর্মে কোনও সমস্যা সেখানে থেকে থাকে তবে কে কী কারণে সেই সমস্যা তৈরি করেছে আমরা তা জানতে চাই” যদিও আইনজীবী বেনুগোপালের দাবি, কাশ্মীরের বিভিন্ন জায়গায় খবর করতে নির্বিঘ্নে চলাফেরা করতে পারছেন বৈদ্যুতিন ও খবরের কাগজের সাংবাদিকরা, কোথাও কোনও সমস্যা নেই। একইভাবে ডিশ টিভি ও রেডিও কাশ্মীর ভালরকম চলছে।