বিজেপি সভাপতি হতে পারেন জে পি নাড্ডা
বিজেপি-র দায়িত্বে আসতে পারেন জেপি নাড্ডা। (Photo Credits: Twitter/BJP4India)

নয়া দিল্লি, ২৯ মে: জল্পনাই সত্যি হতে চলেছে। দলকে একেবারে এভারেস্ট সমান সাফল্য দিয়ে বিজেপি সভাপতি হিসেবে সরতে চলেছেন অমিত শাহ (Amit Shah)। অন্তত সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমজুড়ে এমনটাই ব্রেকিং নিউজ।  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi)-র ইচ্ছা মেনে অমিত শাহ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হচ্ছেন, আর তাই বিজেপি-র দায়িত্ব আনা হতে পারে এতদিন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে কাজ করা জগত প্রকাশ নাড্ডা ( JP Nadda)-কে। ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপি-র দায়িত্বে আনা হয় অমিত শাহকে।

পাঁচ বছর অপ্রত্যাশিত সব সাফল্যের পর অমিত শাহ সরছেন। শোনা যাচ্ছে মোদি টু মন্ত্রিসভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে কাজ করবেন অমিত শাহ, তাই তাঁর পক্ষে দলের দায়িত্ব পালন সম্ভব ছিল না। এবার এত বড় একটা পার্টিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব পড়তে চলেছে হিমাচলপ্রদেশের ৫৯ বছর বয়সী দাপুটে নেতা নাড্ডার কাঁধে। দলের দায়িত্বে আসায় নাড্ডা আর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থাকছেন না। একই সঙ্গে দুটি পদে থাকা যায় না বলে অমিত শাহ মন্ত্রী হবেন বলে, তাঁকে দলের দায়িত্ব ছাড়তে হচ্ছে। বিজেপি সভাপতি হিসেবে নাড্ডার সঙ্গে ধর্মেন্দ্র প্রধানের নামও আলোচনায় ছিল। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় নাড্ডাই ছিলেন নরেন্দ্র মোদির সবচেয়ে আস্থা ভজন। রাজনাথ সিংকে সরিয়ে ২০১৪ সালে বিজেপি সভাপতি নির্বাচিত করা হয়েছিল অমিত শাহকে। প্রসঙ্গত, বিজেপি-র প্রথম সভাপতি ছিলেন অটল বিহারী বাজপেয়ী। একাদশতম সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নিতে পারেন জেপি নাড্ডা।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচন (2019 Lok Sabha Elections) মানুষের ভোটে কার্যত গোটা দেশটাই দখল করে নিয়েছে বিজেপি (BJP)। উত্তরপ্রদেশ (Uttar Pradesh), গুজরাট (Gujrat), দিল্লি (Delhi), বিহার (Bihar), মহারাষ্ট্র (Maharashtra), রাজস্থান (Rajasthan), মধ্যপ্রদেশ (Madhy Pradesh) তো বটেই এমনকি বাংলা,ওডিশা, ত্রিপুরা, অসমেও নরেন্দ্র মোদি ঝড়ে বিজেপি প্রায় সর্বত্র জিতেছে। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে মোট ৩০৩টি আসনে জিতেছে বিজেপি। তবে এবার এখন থেকেই পরবর্তী লোকসভা নির্বাচনের টার্গেট ঠিক করে ফেলছে বিজেপি। নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার আগেই বিজেপি ঠিক করে ফেলল ২০২৪ লোকসভায় তাদের ৩৩৩টি আসনে জিততে হবে। নতুন সভাপতির দায়িত্ব হবে এত বড় সাফল্য ধরে রাখার পাশাপাশি দিল্লি, বাংলা বিধানসভায় জয়। সঙ্গে কেরল, তামিলনাড়ুর মত দক্ষিণের রাজ্যে দলের সংগঠন মজবুত করা। একচেটিয়া জয়ের পর দলের নেতা-কর্মীদের মধ্যে যাতে কোনওরকম আত্মতুষ্টি না আসে তা দেখা।

২০১৪ লোকসভায় বিজেপি জিতেছিল ২৮২টি আসনে। তারপর অনেকেই বলেছিলেন, বিজেপি এমন একটা জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে সেখান থেকে তাদের আর বেশি আসন জেতা সম্ভব নয়। কিন্তু, এবার ভোটের ফল প্রকাশ পেলে দেখা যায় বিজেপি-র আসন গতবারের চেয়ে এক ধাক্কায় একেবারে ২১টি বেড়ে গিয়েছে। গতবারের সব রাজ্যের বিজয়রথের গতি বজায় রেখে, বাংলা-ওডিশা সহ পূর্ব ভারতে জিতে এই 'এইবার, তিনশো পাড়'-এর স্লোগান সত্য়ি হয়।