Uttarakhand Glacier Burst: উত্তরাখণ্ড বিপর্যয়ে আটকদের খোঁজে তপোবন সুড়ঙ্গে উদ্ধারকারী দল, ২০৬ জনের হদিশ মিলছে না
উত্তরাখণ্ড বিপর্যয় (Photo Credits: ANI)

উত্তরাখণ্ড, ১০ ফেব্রুয়ারি:  উত্তরাখণ্ডে হিমবাহ বিপর্যয়ের (Uttarakhand Glacier Burst) পর দেখতে দেখতে মাঝে দুটোদিন কেটে গেছে। এখনও পর্যন্ত ৩২ জনের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। নিখোঁজের সংখ্যা ২০৬। বিপর্যয়ের তৃতীয় দিনেও তপোবন সুড়ঙ্গ থেকে আটকে পড়া ৩৫ জনকে উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এনডিআরএফ, এসডিআরএফ ও আইটিবিপির জওয়ানরা। ঘটনার পর প্রায় ৬০ ঘণ্টা পেরিয়ে গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত আড়াই কিলোমিটার দীর্ঘ সুড়ঙ্গের ভিতরে ঢুকতেই বেগ পেতে হচ্ছে উদ্ধারকারীদের। সুড়ঙ্গের মুখ কাদা, পাথরে আটকে গিয়েছিল। উদ্ধারকারী দল সূত্রে জানানো হয়েছে, সুড়ঙ্গের ভিতরে বড় বড় পাথর আটকে থাকায় সেগুলো পরিষ্কার করে ভিতরের দিকে ঢুকতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।

এসডিআরএফ এর কর্তা জানিয়েছেন, সুড়ঙ্গের ভিতরে যে পরিমাণ কাদা এবং পাথর জমে গিয়েছে তা পরিষ্কার করতে গিয়ে উদ্ধারকাজের গতি মন্থর হয়ে যাচ্ছে। তবে দ্রুত ভিতরে ঢোকার চেষ্টা হচ্ছে। এদিকে আইটিবিপি-র মুখপাত্র বিবেক কুমার পাণ্ডে জানিয়েছেন, সুড়ঙ্গের ভিতরে রাতভর কাদা এবং পাথর সরানোর কাজ হয়েছে। প্রবেশমুখ থেকে ১২০ মিটার পথ পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। সুড়ঙ্গের প্রায় ছাদ পর্যন্ত ঠেকে যাওয়া কাদা, পাথরের স্তূপের উচ্চতা কমে এসেছে। খুব শিগগির আইটিবিপি-র জওয়ানরা ভিতরে ঢুকতে পারবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন বিবেক। তবে এই কাজ করতে যে যথেষ্ট সমস্যার মুখে পড়তে হবে সেই আশঙ্কাও করেছেন তিনি।  আরও পড়ুন-Belur Math Reopens Now: করোনা সতর্কতায় বুধবার থেকে খুলছে বেলুড় মঠ ও তারকেশ্বর মন্দির

অন্ধকার সুড়ঙ্গের মাঝে কোথায় শ্রমিকরা আটকে পড়ে আছেন তা দেখাই বেশ কষ্টকর। সুড়ঙ্গের বাইরে বরফ ভেঙে সেই মুখ থেকেই ভিতরের দিকে চিৎকার ছুঁড়ে দিয়েছেন উদ্ধারকারী দলের জওয়ানরা। তবে ভিতর থেকে কোনও প্রত্যুত্তোর ফিরে আসেনি। ভেবেচিন্তে পা ফেলতে হচ্ছে, হয়তো সুড়ঙ্গ থেকে প্রবল বেগে জলধারাও বেরিয়ে আসতে পারে।