Boris Johnson: কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন তৈরি হলেও তা রোগ সারাবে কি না গ্যারান্টি নেই, বললেন বরিস জনসন
বরিস জনসন (Photo Credits: Facebook)

লন্ডন, ১২ মে: কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন (COVID-19 Vaccine) হাতে এলেও তাতে যে আদৌ সুস্থতার সম্ভাবনা আছে কি না তানিয়ে নিশ্চিত নন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। সোমবার রাতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে বরিস জনসন বলেন, ব্রিটেনের একটা অংশ করোনাভাইরাসের বৈধ ভ্যাকসিন তৈরির জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি আশা করেন হয়তো ভ্যাকসিন তৈরি হবে। তবে তাতে রোগ আদৌ সারবে কি না তার গ্যারান্টি দিতে পারছেন না। “করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরিতে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক জান লড়িয়ে দিচ্ছেন। এই উৎসাহের খবর আমার কানে এসেছে। আমি শুধু এটুকু বলতে পারি যে, ভ্যাকসিন তৈরিতে ইউরোপ আন্তার্জাতিক স্তরেই একেবারে সবার আগে রয়েছে।”

ব্রিটিস সরকারের মুখ্য বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা প্র্যাট্রিক ভ্যালান্স, এই মারণ রোগকে তাড়াতে সফল ভ্যাকসিন তৈরির সম্ভাবনা প্রবল। তবে তিনি কোনও একটা জায়গায় এসে বরিস জনসনকেই সমর্থন করছেন, তৈরি হওয়া ভ্যাকসিন আদৌ কার্যক্ষেত্রে উপকারে আসবে কি না তার কোনও নিশ্চয়তা নেই। আরও পড়ুন- Sale Of AC Train Tickets: ৩ ঘণ্টায় বিক্রি হল ৩০ হাজার রেল টিকিট, আইআরসিটিসির বিশেষ ট্রেনের বুকিংয়ে রেলের ঘরে ১০ কোটি টাকা

ব্রিটেনে অন্তত ১ জুন পর্যন্ত বলবৎ থাকবে করোনাভাইরাস লকডাউন। রবিবার একথাই বলেছেন সেখানকার প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন (Boris Johnson)। সাত সপ্তাহ আগে তিনিই প্রথম এই মারণ ভাইরাস থেকে বাঁচতে সতর্কতা অবলম্বনের বন্দোবস্ত করেন। তিনি এক টেলিভাইসড সাক্ষাৎকারে বলেন, “এই সপ্তাহ লকডাউনে ইতি টানার সময় নয়। জুনের এক তারিখ থেকে কিছু দোকানপাট খুলবে। কিছু প্রাইমারি স্কুলে ক্লাসও শুরু হতে পারে। ১ জুলাই থেকে কিছু জনবহুল জায়গা খুলবে। তবে যাঁরা বিমানে ফিরবেন তাঁদের কঠোর কোয়ারেন্টাইনে থাকতেই হবে।” লকডাউন কীভাবে উঠবে তা ঠিক করতে বেশ চাপে পড়েছে বরিস জনসনের সরকার।