UNESCO On Smartphone: বিশ্বজুড়ে স্কুলগুলিতে স্মার্টফোন নিষিদ্ধ করার আহ্বান ইউনেস্কোর
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: Pixabay)

ওয়াশিংটন: বিশ্বজুড়ে স্কুলগুলিতে (schools) স্মার্টফোন (smartphones) নিষিদ্ধ করার আহ্বান জানাল রাষ্ট্রসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা (UN's education, science and culture agency) ইউনেস্কো (UNESCO)। সম্প্রতি তাদের তরফে প্রকাশিত রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, ক্লাসরুমের (classroom) মধ্যে পড়ুয়াদের যাতে মনোযোগে ব্যাঘাত না ঘটে। তাদের শেখার মান উন্নয়নের স্বার্থে ও সাইবার বুলিং থেকে শিশুদের রক্ষা করতে স্কুলগুলিতে স্মার্টফোন নিষিদ্ধ (banned) করা উচিত।

ইউনেস্কোর প্রকাশিত ওই রিপোর্টে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, স্মার্ট ফোনের অতিরিক্ত ব্যবহারে শিক্ষাগত দক্ষতা (educational performance) কমে যায়। মোবাইলের দিকে অতিরিক্ত তাকিয়ে থাকার জন্য শিশুদের মানসিক স্থিতিশীলতার ওপর খারাপ প্রভাব ফেলে। শিক্ষকদের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের মুখোমুখি যোগাযোগের যে রসায়ন, তা আর কোনওভাবে হতে পারে না। তাই শিক্ষায় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার মানব-কেন্দ্রিক দৃষ্টিভঙ্গির অধীনে হওয়া উচিত।

ডিজিটাল প্রযুক্তির কু-ফল সম্পর্কে প্রতিটি দেশের নীতি নির্ধারকদের সতর্ক করে ইউনেস্কো জানিয়েছে, নতুন মানেই যে ভালো এমন জিনিস নাও হতে পারে। সব পরিবর্তন আমাদের সামনের দিকে এগিয়ে নাও দিতে পারে।

এপ্রসঙ্গে ইউনেস্কোর ডিরেক্টর জেনারেল অড্রে আজৌলে (Unesco's director general, Audrey Azoulay) জানান, ডিজিটাল বিপ্লবের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু সমাজের ভালোর জন্য এই বিষয়ে নিয়ন্ত্রণের দরকার রয়েছে। একইভাবে শিক্ষার ক্ষেত্রেও একে কী ভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে সেদিকেও মনোযোগ দেওয়া উচিত।

ওই রিপোর্টে অভিযোগ করা হয়েছে, বিভিন্ন বহুজাতিক সংস্থাগুলি নিজেদের ব্যবসায়িক স্বার্থে শিক্ষার সঙ্গে ডিজিটাল প্রযুক্তিকে যুক্ত করতে চাইছে। এভাবে গোটা বিশ্বের শিক্ষা ব্যবস্থাকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে। কিন্তু, এর কুফল সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকতে হবে। লক্ষ্য করতে হবে প্রযুক্তির ব্যবহার যেন পড়ুয়াদের উন্নতির বদলে ক্ষতি না করে। আরও পড়ুন: IRCTC Down: টিকিট কাটা যাচ্ছে না IRCTC-তে, পরিষেবা সমাধানে তৎপর সংস্থা