'ইয়ো ইয়ো টেস্টের সময় যদি তুমি থাকতে', সৌরভ গাঙ্গুলিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বললেন যুবরাজ সিং
যুবরাজ সিং ও সৌরভ গাঙ্গুলি (Photo: Facebook)

নতুন দিল্লি, ১৯ অক্টোবর: বিসিসিআই (BCCI)-র মসনদে বসা এখন সময়ের অপেক্ষা সৌরভ গাঙ্গুলির (Sourav ganguly) জন্য। ইতিমধ্যেই তিনি শুভেচ্ছায় ভাসছেন। প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের একসময়ের সতীর্থ ও শিষ্যদের থেকে ভেসে আসছে একের পর এক শুভেচ্ছাবার্তা। এবার সেই শুভেচ্ছাবার্তা প্রেরকদের তালিকায় যোগ হল যুবরাজ সিংয়ের (Yuvraj Singh) নাম। নিজের প্রিয় ক্যাপ্টেনকে নতুন পদে আসীন হওয়ার জন্য শুভেচ্ছা জানিয়ে যুবি বলেন, "সবচেয়ে বড় মানুষটি সবচেয়ে বড় যাত্রা! প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক থেকে বিসিসিআই-র সভাপতি। একজন প্রাক্তন ক্রিকেটার প্রশাসনে বসায় খুব ভালো হল। এবার প্রশাসনে থাকা বাকিদের সে খেলোয়াড়দের দৃষ্টভঙ্গির সঙ্গে অবগত করাতে পারবে।" এরপরই মজার ছলে যুবি বলেন, "ভালোই হল যদি ইয়ো-ইয়ো টেস্ট লাগুর সময়ে তুমি বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট থাকতে। গুড লাক দাদি।"

বিশ্বকাপের আগে দল থেকে বাদ পড়ার পর চলতি বছরের জুন মাসে ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা করেন প্রাক্তন বাঁহাতি যুবরাজ সিং। তবে সৌরভ প্রেসিডেন্ট হতে চলায় তাঁর মনে হয়, শুধু যদি সেই সময় দাদা থাকত। টুইটে তঁর দল থেকে বাদ পড়ার পদ্ধতি নিয়েই তিনি খোঁচ দিয়েছেন। প্রাক্তন সতীর্থকে পাল্টা ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি সৌরভ। তিনি টুইটে লেখেন, "তোমাকে ধন্যবাদ। তুমি ভারতের হয়ে বিশ্বকাপ জিতেছ। খেলার জন্য এখন ভালো কিছু করার সময়। তুমি আমার সুপার স্টার ..ভগবান সর্বদা মঙ্গল করুন।" আরও পড়ুন: পাকিস্তানের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কত্ব খোয়ালেন সরফরাজ আহমেদ

বিসিসিআই-র প্রেসিডেন্ট পদের নির্বাচনে লড়তে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। এনিয়ে সোমবার তিনি বলেন, "এটা ভারতের ক্রিকেট প্রশাসনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সময়। গত তিন বছরে যা ঘটেছে। আমি আমার টিমকে নিয়ে পরিবর্তন আনার চেষ্টা করব। আশা করছি সামনের কয়েক মাসে ভারতীয় ক্রিকেটে স্থিতিশীলতা আনতে পারব।" ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত বিসিসিআই সভাপতি থাকতে পারবেন সৌরভ গাঙ্গুলি। তিনি ৫ বছর ধরে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের প্রেসিডেন্ট পদেও রয়েছেন। লোধা কমিশনের সুপারিশ কার্যকর হওয়ার পর কোনও প্রশাসনিক পদে একজন সর্বোচ্চ ৬ বছর থাকতে পারবে।