COVID-19 Vaccine: জনসন অ্যান্ড জনসনের কোভিড ভ্যাকসিনের প্রথম ট্রায়ালে মিলছে ইতিবাচক ফল, তৈরি হচ্ছে অ্যান্টিবডি
ভ্যাকসিনের প্রতীকি ছবি (Photo Credits: Oxford Twitter)

নতুন দিল্লি, ২৬ সেপ্টেম্বর: অ্যান্টি করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন আবিষ্কার করতে মরিয়া গোটা বিশ্ব। জনসন অ্যান্ড জনসনের (Johnson & Johnson) তৈরি এক ডোজের কোভিড ভ্যাকসিনের (COVID Vaccine) প্রথম ট্রায়ালে ইতিবাচক ফল মিলেছে। শুক্রবার প্রকাশিত ট্রায়ালের একটি রেজাল্টে জানানো হয়, এই ভ্যাকসিন (Vaccine) প্রয়োগে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ছে। তবে বেশকিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও দেখা দিচ্ছে।

প্রকাশিত রেজাল্ট অনুযায়ী, জনসন অ্যান্ড জনসন AD26.COV2.S ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চালাচ্ছে। ভ্যাকসিনটির দুটি ডোজ ও একটি ডোজের মধ্যে কী পার্থক্য রয়েছে, তা দেখতে আলাদা আলাদাভাবে পরীক্ষা করে দেখছে মোডের্না ও ফাইজার নামের দু’টি সংস্থা। তবে সব বয়সের মানুষের দেহে এই ভ্যাকসিন সমানভাবে কার্যকর হবে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়। আরও পড়ুন, দীপিকা পাদুকোনের পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য NCB অফিসে হাজিরা শ্রদ্ধা কাপুরের

৯৮ শতাংশ ভলান্টিয়ারের শরীরে করোনার বিরুদ্ধে মোকাবিলা করতে সক্ষম এমন অ্যান্টিবডি (Antibody) তৈরি হয়েছে জনসন অ্যান্ড জনসন-র এই ভ্যাকসিনে। ভ্যাকসিন দেওয়ার ২৯ দিন পরে এই অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে। যদিও ৬৫ বছরের বেশি বয়স্ক মানুষদের মধ্যে মাত্র ১৫ জনের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আবার অল্পবয়সীদের শরীর এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও দেখা দিয়েছে। যা চিন্তায় ফেলেছে গবেষকদের। দেখা গেছে, ৬৫ বছরের বেশি বয়স্কদের ৩৬ শতাংশ ভলান্টিয়ারদের মধ্যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যেমন মাথা ধরা ও পেশিতে ব্যথা দেখা দিচ্ছে। অথচ অল্পবয়স্ক ভলান্টিয়ারদের মধ্যে সেটা ৬৪ শতাংশের শরীরে এই লক্ষণ দেখা যাচ্ছে।